রাস্তার কুকুররা সব সময় চিৎকার করে। এই চিৎকার শুনলে তাঁর বিরক্তি চরমে পৌঁছয়। সোমবার সকালে তাঁর বাড়ির সামনে একটি রাস্তার কুকুর চিৎকার করছিল। রাগে নিজের এয়ারগান করে ওই কুকুরকে লক্ষ্য করে তিন রাউন্ড গুলি চালালেন বেঙ্গালুরুর এক চিকিৎসক। তাঁর প্রতিবেশী ও পশুপ্রেমীরা থানায় অভিযোগ করলে ওই অভিযুক্ত চিকিৎসককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার সকালে এই ঘটনা ঘটেছে বেঙ্গালুরুর জয়নগরে। অভিযুক্ত ওই চিকিৎসকের নাম শ্যাম সুন্দর। তাঁর বয়স ৮৩। তিনি বেঙ্গলুরুর একটি হাসপাতালের মনোরোগ চিকিৎসক ছিলেন। পুলিশ জানিয়েছে, চিৎকার করা ও এলাকা নোংরা করার জন্য কুকুরদের উপর খাপ্পা ছিলেন ওই চিকিৎসক। সোমবার তাঁর বাড়ির সামনের একটি কুকুর নোংরা করলে তিনি তাড়ানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু না পালিয়ে কুকুরটি সমানে চিৎকার করতে থাকে। তখনই রেগে গিয়ে নিজের এয়ারগান দিয়ে গুলি চালান ওই চিকিৎসক।

গুলি খেয়ে কুকুরটি চিৎকার করে কাঁদতে থাকে। তা দেখে স্থানীয়রা খবর দেন এক পশুপ্রেমীকে। তিনি এসে স্থানীয়দের সাহায্যে কুকুরটিকে জয়নগর পশু ক্লিনিকে নিয়ে যান। পরে তাকে জেপি নগরের একটি পেট ক্লিনিকে স্থানান্তরিত করা হয়। এর পরই পশুপ্রেমী কে ভি হরিশ ওই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে জয়নগর থানায় অভিযোগ করেন। জনগরের বিধায়ক ও পশুপ্রেমী সৌম্য রেড্ডিও কুকুরটিকে দেখতে হাসপাতালে যান।

জানা গিয়েছে, চিকিৎসার পর কুকুরটির অবস্থা এখন স্থিতিশীল। এক্স রে রিপোর্টে দেখা গিয়েছে, তার শরীরে তিনটি পেলেট ঢুকে রয়েছে। অপারেশন করে সে গুলি বার করা হবে বলে জানিয়েছেন পরভীন নামের সেখানকার এক পশুপ্রেমী। 

আরও পড়ুন: অবশেষে ধরা পড়ল বেঙ্গালুরুর রাস্তায় ঘুরে বেড়ানো ‘ভূতেরা’

আরও পড়ুন: প্রতি কেজি পেঁয়াজের দাম আট টাকা! কান্নায় ভেঙে পড়লেন কৃষক