এক আইনের ছাত্রীকে লাগাতার ব্ল্যাকমেল ও ধর্ষণ করার অভিযোগে অভিযুক্ত বিজেপি নেতা চিন্ময়ানন্দ অসুস্থ অবস্থায় নিজের বাড়িতেই চিকিৎসাধীন। সোমবার সকালেই তাঁর বিরুদ্ধে ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পাঁচ ঘণ্টা  গোপন বয়ান দিয়েছেন ওই ছাত্রী। আর রাতেই ভাইরাল হওয়া ছবিতে দেখা গেল প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর চিকিৎসা চলছে, চিকিৎসকদের একটি দল তাঁর স্বাস্থ্য পরীক্ষায় ব্যস্ত।

ঠিক কী হয়েছে চিন্ময়ানন্দের? তাঁর প্রধান চিকিৎসক এম এস আগরওয়াল সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ‘‘ডায়েরিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন এই নেতা। প্রয়োজনীয় ওষুধপত্র তাঁকে দেওয়া হয়েছে। আপাতত তাঁকে বিশ্রাম নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। চিন্ময়ানন্দ ডায়াবিটিসের রোগী, সেই বিষয়টিও  আমাদের মাথায় রাখতে হচ্ছে।’’

গত ২৪ অগস্ট চিন্ময়ানন্দের বিরুদ্ধে প্রথম অভিযোগ এনেছিলেন এই আইনের ছাত্রী। তিনি বারবারই দাবি করেছেন, চিন্ময়ানন্দ তাঁকে ব্ল্যাকমেল করেছেন। তাঁকে বন্দুক দেখিয়ে দিনের পর দিন নিপীড়ন চালানো হয়েছে। শনিবারর সিটের হাতে মোট ৪৩ টি ভিডিও তুলে দিয়েছিলেন অভিযোগকারিণী। সিটের তরফে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় চিন্ময়ানন্দকেও।  তার পরেই সোমবার শাহজাহানপুরের আদালতে পাঁচ ঘণ্টা ধরে বয়ান নথিভুক্ত করা হয় তাঁর।

আরও পড়ুন:ট্রাফিক আইন ভাঙলে চালানের বদলে বাইক আরোহীদের হেলমেট দিচ্ছে পুলিশ!
আরও পড়ুন: কাশ্মীর যদি স্বাভাবিক, কেন আটকে রাখা হয়েছে ফারুককে, তোপ কপিল সিব্বলের

ওয়াকিবহাল মহল মনে করছিল, এই বয়ানের ভিত্তিতেই তাঁর বিরুদ্ধে চার্জশিট পেশ করবে আদালত।  এই আবহেই সোমবার হঠাত্‍‌ই অসুস্থ হয়ে পড়েন চিন্ময়ানন্দ। আত্মীয়দের সোমবার সন্ধেয় বুকে যন্ত্রণার কথা জানালে, শাহাজাহানপুরের দিব্যধামের বাড়িতেই চিকিৎসার আয়োজন করা হয়। তিন জন ডাক্তার-সহ ৬ জনের একটি দল প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ করেন।