চলতি বছরের শেষে মহারাষ্ট্র, হরিয়ানা এবং ঝাড়খণ্ডে বিধানসভা নির্বাচন। এবিপি আনন্দ-সি ভোটার জনমত সমীক্ষায় ইঙ্গিত, ওই তিন রাজ্যে আবার ক্ষমতায় ফিরতে পারে বিজেপি। ঝাড়খণ্ডে জোট না-হলে বিরোধীদের কড়া চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে পারে গৈরিক শিবির।

গত ১ থেকে ১০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে তিন রাজ্যের ৭২টি লোকসভা কেন্দ্র এবং ৪৫৯টি বিধানসভা আসনের ১২,৯২৭ জন ভোটাদাতার সঙ্গে কথা বলে সমীক্ষার রিপোর্টটি তৈরি হয়েছে। এই ধরনের সমীক্ষা সব সময়ে বাস্তবের সঙ্গে মেলে না। কিন্তু সমীক্ষার বৈজ্ঞানিক ভিত্তি রয়েছে। এর থেকে জনমতের একটা আভাস পাওয়া যায়। 

সমীক্ষকেরা জানতে চেয়েছিলেন, হরিয়ানা, মহারাষ্ট্র এবং ঝাড়খণ্ডে কোন দল ক্ষমতা দখল করবে? সমীক্ষায় ইঙ্গিত, পুনরায় ক্ষমতায় ফিরবে বিজেপি। জোট না-হলে হরিয়ানা বিধানসভায় ৯০টি আসনের মধ্যে বিজেপি দখল করতে পারে ৭৮টি, মহারাষ্ট্রে ২৮৮টি আসনের মধ্যে বিজেপি পেতে পারে ১৪৪টি এবং ঝাড়খণ্ডে ৮১টি আসনের মধ্যে ৫৫টি যেতে পারে বিজেপির দিকে। কিন্তু জোট হলে মহারাষ্ট্র এবং হরিয়ানায় বিজেপি ক্ষমতা ধরে রাখতে পারলেও ঝাড়খণ্ডে তারা কঠিন লড়াইয়ের মুখে পড়তে পারে।

সমীক্ষায় উঠে এসেছে, লোকসভা নির্বাচনের প্রভাব পড়বে বিধানসভা ভোটেও। প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নরেন্দ্র মোদীকেই পছন্দ ওই তিন রাজ্যের ভোটদাতাদের। কারণ, এই সময়ে তিনিই যোগ্যতম। ভোটদাতারা এখনই চান না কেন্দ্রে ক্ষমতা বদল হোক।