চব্বিশ ঘণ্টার নাটকের পরে রাজ্যসভা থেকে ইএসআই (এমপ্লয়িজ় স্টেট ইনসিওরেন্স) কমিটির সদস্য পদে আজ ভোটাভুটি হল। ৯২টি ভোট পেয়ে জিতলেন তৃণমূলের দোলা সেন। ভোটের হিসেব বলছে বিজেপির অন্তত ২২টি ভোট পেয়েছেন দোলা। ওই পদে কংগ্রেসের পরাজিত প্রার্থী প্রদীপ ভট্টাচার্য বলেন, ‘‘তৃণমূল ও বিজেপির লড়াইটা যে সাজানো, তা আজ আবার প্রমাণ হয়ে গেল। আমার সামনে দলে দলে বিজেপি-সাংসদ দোলা সেনকে ভোট দিয়েছেন।’’ তৃণমূল নেতৃত্বের বক্তব্য, ‘‘এটা কোনও রাজনৈতিক লড়াই নয়। সংসদীয় ঐতিহ্য অনুযায়ী ঐকমত্যের মাধ্যমেই এই পদে মনোনয়ন হয়ে থাকে। এ ক্ষেত্রে নির্বাচন হয়েছে। কে আমাদের ভোট দিয়েছে জানি না।’’  

রাজ্যসভা থেকে ইএসআই বোর্ডের সদস্য পদটি বিরোধী কোটার। আগে ওই পদে ছিলেন তৃণমূলের দেবব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূলের বক্তব্য, তিনি অবসর নেওয়ার পরে পদটি ফের তাদেরই পাওয়া উচিত। কিন্তু ঐকমত্যের ভিত্তিতে ওই বোর্ডের সদস্য ঠিক করার পরিবর্তে নির্বাচন ডেকেছিলেন সংসদীয় প্রতিমন্ত্রী ভি মুরলীধরন। মনোনয়ন জমা দিয়েছিলেন কংগ্রেসের প্রদীপ ভট্টাচার্য, সিপিএমের এলম আরম করিম এবং তৃণমূলের দোলা সেন। 

গত সপ্তাহেই রাজ্যসভায় বিরোধী সমন্বয় নিয়ে সিপিএমের সঙ্গে কথা হয়েছিল তৃণমূলের। এক ধাপ এগিয়ে এ বার ইএসআই কমিটিতে রাজ্যসভার মনোনীত প্রার্থীর পদটি প্রাথমিক ভাবে সিপিএমকে ছেড়ে দিতে চেয়েছিল তৃণমূল। তবে গত কাল গভীর রাত পর্যন্ত চেষ্টা করেও সিপিএম প্রার্থীকে সমর্থন করার জন্য কংগ্রেসকে রাজি করাতে পারেনি তৃণমূল। তখন তারা স্থির করে ভোটে অংশগ্রহণ থেকে বিরত থাকবে। 

কিন্তু তৃণমূল নেতৃত্ব বিবেচনা করে দেখেন, কংগ্রেস এবং সিপিএমকে মাঠ ছেড়ে দেওয়াটা ন্যায্য হবে না। ভুল বার্তা যেতে পারে তাতে।

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও।সাবস্ক্রাইব করুনআমাদেরYouTube Channel - এ।