• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

রোহতকে বস্তায় বালিকার দেহ, কাটা হাত, যৌনাঙ্গে ক্ষত

representational image
গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

কাঠুয়া, উন্নাও, সুরাতেও শেষ হল না। বিজেপি শাসিত হরিয়ানার রোহতক থেকে উদ্ধার হল এক বালিকার গলা পচা দেহ। হতভাগ্য মেয়ের পরিচয় স্পষ্ট নয়। তবে পুলিশের ধারণা, ৯-১০ বছরের এই মেয়েটিও সম্ভবত গণধর্ষণের শিকার, এবং ধর্ষণের পর তাকে খুন করা হয়েছে।

রবিবার রোহতকের টিটোলি গ্রামে, ড্রেনের জলে বড়সড় একটি সবুজ ব্যাগ ভাসতে দেখা যায়। সন্দেহ হওয়ায় পুলিশে খবর দেওয়া হয়। এক পুলিশকর্মীর কথায়, ‘‘ব্যাগ খুলতেই আমরা চমকে উঠেছিলাম। পচেগলে যাওয়া দেহে একটা হাত ছিল না। হয়ত কোনও পশু মৃতদেহ খুবলে খেয়েছ।’’ মনে করা হচ্ছে, অন্তত দিন পাঁচেক আগে তাকে খুন করা হয়েছিল।

দিন কয়েক ধরেই উন্নাও ও কাঠুয়া-কাণ্ড নিয়ে প্রবল চাপে পড়েছে দুই রাজ্যের বিজেপি সরকার। দেশ জুড়ে উঠেছে প্রতিবাদের ঝড়। ক্ষোভের মাত্রা আঁচ করে মুখ খুলতে হয়েছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকেও। নির্যাতিতাদের সুবিচার মিলবে বলে তিনি আশ্বাসও দিয়েছেন। কিন্তু এর পরে তাঁর নিজের রাজ্য গুজরাটেও শিশুধর্ষণ এবং খুনের ঘটনা সামনে উঠে আসে। দিন দশেক আগে সুরাতের পাণ্ডসেরা এলাকায় জঞ্জালের স্তূপ থেকে থেকে উদ্ধার হয়েছিল ১১ বছরের বালিকার নিথর দেহ। তার শরীরে অন্তত ৮০টি আঘাতের চিহ্ন ছিল। দিন দুয়েক আগে পুলিশ জানায়— ময়নাতদন্তের রিপোর্ট অনুযায়ী, গণধর্ষণের পর তাকে খুন করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: মক্কা মসজিদ বিস্ফোরণ: অসীমানন্দ- সহ ৫ অভিযুক্ত খালাস

আরও পড়ুন: কাঠুয়া মামলা সরাতে চাইছে ধর্ষিতার পরিবার, সুপ্রিম কোর্টের কাছে অনুরোধ

তবে কি হরিয়ানার মেয়েও একই ঘটনার শিকার? পুলিশ জানিয়েছে, মৃতের যৌনাঙ্গে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তবে ধর্ষণের ফলেই সেই আঘাত কি না, তা ময়নাতদন্তের রিপোর্ট না এলে বোঝা সম্ভব নয়। আপাতত অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের নামে অভিযোগ দায়ের করেছে পুলিশ। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন