তৃতীয় দিনের জন্য কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারের প্রশ্নোত্তর পর্ব শুরু হয়েছে শিলংয়ে ওকল্যান্ডের সিবিআই দফতরে।

সোমবার সকাল ১০টা নাগাদ তৃণমূলের রাজ্যসভার প্রাক্তন সাংসদ কুণাল ঘোষ ওকল্যান্ডের সিবিআই দফতরে এসে পৌঁছন। তার এক ঘণ্টা পরে সিবিআই দফতরে পৌঁছন রাজীব কুমার। রবিবারই রোজ ভ্যালি তদন্তের তদন্তকারী মহিলা সিবিআই অফিসার শোজোম শেরপাকে ডেকে পাঠানো হয়েছিল শিলংয়ে। এ দিন সকালে প্রচুর নথিপত্র নিয়ে তিনিও সিবিআই দফতরে পৌঁছন। সিবিআই সূত্রে জানা যাচ্ছে, আজ মূলত রোজভ্যালি নিয়ে রাজীব কুমারের সঙ্গে প্রশ্নোত্তর পর্ব চলতে পারে সিবিআই অফিসারদের।

সিবিআইয়ের অভিযোগ, দুর্গাপুরে রোজ ভ্যালি নিয়ে একটি অভিযোগ দায়ের হয়েছিল। পরবর্তী কালে রোজ ভ্যালি সংক্রান্ত নথিপত্র সিবিআইয়ের হাতে তুলে দেওয়ার সময়ে সেই মামলার কথা উল্লেখ করেনি সিট। যার ফলে, তাদের রোজ ভ্যালি নিয়ে মূল মামলা ভুবনেশ্বরে করতে হয়েছে।

আরও পড়ুন: প্রত্যক্ষদর্শীদের বয়ানে অসঙ্গতি, বিধায়ক খুনে প্রশ্ন ধৃতদের নিয়েও

রবিবার সকাল থেকে টানা ১০ ঘণ্টা সিবিআই দফতরে ছিলেন রাজীব-কুণাল। তবে সকাল থেকে তাঁদের দু’জনকে মুখোমুখি বসানো হয়নি। সন্ধ্যা ৭.৩০টা নাগাদ কুণালের সঙ্গে রাজীব কুমারকে মুখোমুখি বসানো হয়। রাত ৯.৪৫ পর্যন্ত দু’জনকে মুখোমুখি বসিয়ে প্রশ্নোত্তর পর্ব চলে। প্রশ্নোত্তর পর্ব শেষ হলে রাজীব প্রায় ১ ঘণ্টা ধরে তাঁর লিখিত বয়ান পুঙ্খানুপুঙ্খ ভাবে খতিয়ে দেখে রাত ১০.৪৫ নাগাদ সিবিআই দফতর থেকে বেরিয়ে আসেন। তখনও অবশ্য কুণাল ঘোষ ভিতরেই ছিলেন। জানা গিয়েছে, রাজীব বেরিয়ে যাওয়ার পর তিনি সিবিআইয়ের সঙ্গে অন্য একটি ঘরে বসেছিলেন। রাত ১১টা ৫ নাগাদ কুণাল সিবিআই দফতর থেকে বেরিয়ে হোটেলে যান।