ফোটোকপি নই: অরোরা
ভোট চলা কালে নির্বাচন কমিশনার অশোক লাভাসার সঙ্গে তাঁর মতবিরোধ প্রকাশ্যে এলে অরোরা বলেছিলেন, সব কিছুরই একটা সময় থেকে।
Sunil Arora

—ফাইল চিত্র।

ভোট-পর্ব মেটার পরে এ বার নীরবতা ভাঙলেন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরা। ভোট চলা কালে নির্বাচন কমিশনার অশোক লাভাসার সঙ্গে তাঁর মতবিরোধ প্রকাশ্যে এলে অরোরা বলেছিলেন, সব কিছুরই একটা সময় থেকে। আজও তাঁর বক্তব্য, ‘‘কিছু সময় চুপ থাকতে হয়। কিছু বলারও একটা সময় থাকে।’’ 

মুখ্য নির্বাচন কমিশনার এ দিন এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ‘‘নরেন্দ্র মোদী, অমিত শাহ নির্বাচনী আচরণবিধি ভাঙেননি। কমিশন ঠিক সিদ্ধান্তই নিয়েছিল। ভুল ধারণা বা অনুভবে যা-ই থাক না কেন, নিজের কাছে কেউই আমরা মিথ্যে বলতে পারি না।’’ শীর্ষ আদালতের সমালোচনার মুখে পরে কমিশন বিধিভঙ্গের অভিযোগ নিয়ে তৎপর হয়েছিল। জানিয়েছিল, মোদী-শাহ আচরণবিধি ভাঙেননি। 

তিন সদস্যের নির্বাচন কমিশনের অন্যতম সদস্য লাভাসা এই সিদ্ধান্তের সঙ্গে একমত ছিলেন না। তিনি দাবি করেন, কমিশনের সিদ্ধান্তে তাঁর বিরুদ্ধ মত নথিভুক্ত করতে হবে। অরোরা তা না মানায় কার্যত বিদ্রোহ করেন লাভাসা। গোট পর্ব নিয়ে নিজের অবস্থানে এখনও অনড় মুখ্য নির্বাচন কমিশনার আজ বলেন, ‘‘কমিশনের তিন সদস্য যে যা মত দেন, সে সব রেকর্ডে থাকে। তবে সিদ্ধান্ত সর্বসম্মতিতে হয়েছে নাকি, কোনও বিরুদ্ধ মত ছিল— রায়ে তার উল্লেখ থাকে না। ঠিক যেমন, ইউপিএসসি কোনও প্রার্থীকে তাঁর ফলটাই জানিয়ে দেয়। কোন পরীক্ষক তাঁকে কী নম্বর দিয়েছেন, সেটা ফলে লেখা থাকে না।’’ 

বিরোধ এড়ানোর প্রশ্নে অরোরার মন্তব্য, ‘‘আগের ও এখনকার নির্বাচন কমিশন, কিংবা নির্বাচন কমিশনারেরা একে অপরের ফোটোকপি হতে পারেন না।’’ 

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত