• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

নাগরিক কর্তব্য মনে করালেন সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতিও

chief justice
সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি।

Advertisement

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) বিরোধী আন্দোলনের আবহে বিশ্ববিদ্যালয়গুলির ভূমিকা নিয়ে এ বার প্রশ্ন তুললেন সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি শরদ অরবিন্দ বোবডে। শনিবার মহারাষ্ট্রের নাগপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০৭তম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘‘বিশ্ববিদ্যালয়গুলি অশান্তি তৈরির কারখানা নয়।’’

প্রসঙ্গত, দেশ জুড়ে সিএএ বিরোধী আন্দোলনে অগ্রণী ভূমিকা নিয়েছে জেএনইউ, জামিয়া মিলিয়া, আলিগড়, যাদবপুর-সহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা। তাই নিয়ে সমালোচনার সুর শোনা গিয়েছে বিজেপি নেতা-মন্ত্রীদের গলায়।

এ দিনের অনুষ্ঠানে প্রধান বিচারপতি নাগরিকদের দায়িত্বও স্মরণ করিয়ে  দেন। তাঁর কথায়, নাগরিকত্ব শুধু জনগণের অধিকার নয়, সমাজের প্রতি তাঁদের দায়িত্বও রয়েছে। সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও ছাত্র ও নাগরিক আন্দোলনের উল্লেখ করে সমাজের প্রতি নাগরিকদের কর্তব্য স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন।

কয়েক দিন আগেই দিল্লিতে এক অনুষ্ঠানে সিএএ বিরোধী আন্দোলনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলির ভূমিকা নিয়ে মুখ খুলে বিতর্কে জড়িয়েছেন প্রাক্তন সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়ত। আর এ দিন প্রধান বিচারপতি বোবডে বলেন, ‘‘বিশ্ববিদ্যালয়গুলি ইট আর মর্টার বানানোর জায়গা নয়। নিছক কলকারখানার প্রোডাকশন ইউনিটের মতো সেগুলি চলবে, তা-ও প্রত্যাশিত নয়। বিশ্ববিদ্যালয় অশান্তি সৃষ্টির কারখানা নয়।’’ প্রধান বিচারপতি আরও বলেন, ‘‘বিশ্ববিদ্যালয়গুলির মাথায় রাখা উচিত, তাদের কাছে সমাজের কিছু প্রত্যাশা থাকে। কিছু পাওয়ার থাকে।’’

প্রধান বিচারপতির আরও দাবি, বর্তমানে বেশ কিছু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ‘টাকা রোজগার’ ছাড়া কিছুই বোঝে না। তাঁর মতে, বুদ্ধিমত্তা এবং চরিত্র উন্নত করাই শিক্ষার মূল লক্ষ্য।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন