খরচে রাশ টানতে কর্মী ছাঁটাইয়ের সিদ্ধান্ত নিল কগনিজেন্ট। বেশ কিছু উচ্চপদস্থ কর্মীকে শীঘ্রই স্বেচ্ছাবসরের চিঠিও ধরানো হতে পারে বলে সংস্থা সূত্রে খবর। তবে এক লপ্তে কত জনকে ছাঁটাই করা হবে, সে বিষয়ে মুখ খুলতে চায়নি সংস্থা। এমনকী এই তালিকায় কাদের নাম থাকছে সে বিষয়েও কিছু জানানো হয়নি। তবে তাদের মোট ২.৬ লক্ষ কর্মীর তুলনায় এই সংখ্যাটা খুবই সামান্য বলেই জানিয়েছে কগনিজেন্ট।

সংস্থার মুখপাত্র সম্প্রতি জানিয়েছেন, প্রাথমিক ভাবে যাঁদের বেতন বছরে ৪০ লক্ষের বেশি তেমন কর্মীরাই এই তালিকার অন্তর্ভুক্ত হবেন। বেশ কিছু ডিরেক্টর এবং সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট স্তরের কর্তা ব্যক্তিদের ভিআরএস দেওয়া হতে পারে বলেও জানানো হয়েছে। কগনিজেন্ট সূত্রে খবর, স্বেচ্ছাবসর নেওয়ার আগে নূন্যতম নয় মাসের আগাম বেতন দেওয়া হবে কর্মীদের হাতে।

আরও পড়ুন: তালাক পাওয়া মুসলিম মহিলাদের জন্য পেনশনের পরিকল্পনা অসম সরকারের

কেন হঠাৎ কর্মী ছাঁটায়ের সিদ্ধান্ত নিল কগনিজেন্ট? সংস্থা সূত্রে খবর, অটোমেশন এবং ডিজিটাল টেকনোলজির পথ আরও মসৃণ করতেই খরচ কমানোর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। জানা গিয়েছে, এই বছরের শেষ পর্যন্ত চলবে এই ছাঁটাই প্রক্রিয়া।