• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

করোনা পরীক্ষা বিনামূল্যে, নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

SC
ফাইল চিত্র।

ভারতে কোভিড-১৯ রোগাক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে দ্রুত গতিতে। বাড়ছে প্রাণহানির ঘটনাও। এই পরিস্থিতিতে করোনা পরীক্ষা নিখরচায় করানোর নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট। কেন্দ্রকে অবিলম্বে এই নির্দেশ কার্যকর করতে বলেছে শীর্ষ আদালত। আজ কেন্দ্রকে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ, যে-সব চিকিৎসক, নার্স এবং স্বাস্থ্যকর্মী করোনা-আক্রান্তদের চিকিৎসায় যুক্ত, তাঁদের জন্য পিপিই বা বস্ত্রবর্ম নিশ্চিত করতে হবে।

প্রথমে দেশে ১১৮টি ল্যাবরেটরিতে দিনে ১৫ হাজার করোনা পরীক্ষা হত। কিন্তু পরিস্থিতি বিবেচনা করে আরও ৪৭টি বেসরকারি ল্যাবরেটরিকে পরীক্ষার অনুমতি দেয় কেন্দ্র। মানুষ যাতে নিখরচায় করোনা পরীক্ষা করাতে পারেন, সেই ব্যাপারে কেন্দ্রকে নির্দেশ দেওয়ার আবেদন জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে জনস্বার্থ মামলা করেছিলেন আইনজীবী শশাঙ্কদেও সুধি। সেই মামলার প্রেক্ষিতে আজ বিচারপতি অশোক ভূষণ এবং বিচারপতি রবীন্দ্র ভাটের বেঞ্চ জানিয়েছে, অতিমারির প্রসার রুখতে বেসরকারি হাসপাতাল, ল্যাবরেটরিগুলির গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। বেঞ্চ বলেছে, ‘‘সরকার অনুমোদিত ল্যাবরেটরি এবং বেসরকারি ল্যাবরেটরিগুলিকে বিনামূল্যে কোভিড-১৯ পরীক্ষা করতে হবে। যে-সব বেসরকারি ল্যাবরেটরি নিখরচায় ওই পরীক্ষা করবে, তারা রিইমবার্সমেন্ট বা পরে খরচের অর্থ ফেরত পাওয়ার অধিকারী কি না, সেটা পরে দেখা যাবে। এই নির্দেশ রূপায়ণের জন্য কেন্দ্র এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ অবিলম্বে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করুক।’’

কেন্দ্রের তরফে আদালতে সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা জানিয়েছিলেন, করোনার দাপট বাড়ছে। এখনও কেউ জানেন না, আরও কতগুলি ল্যাবরেটরিকে পরীক্ষার দায়িত্ব দিতে হবে। বিনামূল্যে পরীক্ষার বিষয়টি তিনি কেন্দ্রকে জানাবেন। 

আরও পড়ুন: ১১ই মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে কথা মোদীর, লকডাউন বৃদ্ধি চেয়ে সওয়াল

কোভিড-১৯ পরীক্ষায় বেসরকারি ল্যাবরেটরিগুলিতে ৪৫০০ টাকা খরচ হয়। আদালত জানিয়েছে, দেশের একটা বড় অংশের মানুষের এই অর্থ খরচের সামর্থ্য না-ও থাকতে পারে। অর্থাভাবে তাঁরা যাতে করোনা পরীক্ষা থেকে বঞ্চিত না-হন, তাই বিনামূল্যে পরীক্ষার নির্দেশ। বেঞ্চ বলেছে, ‘‘কোভিড-১৯ পরীক্ষা অবশ্যই এনএবিএল অনুমোদিত ল্যাবরেটরি এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও আইসিএমআরের অধীন এজেন্সিকে দিয়েই করাতে হবে।’’ 

আজ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভিডিয়ো-বৈঠকে বিভিন্ন দলের নেতারা বেসরকারি ল্যাবরেটরিতে নিখরচায় করোনা পরীক্ষার দাবি তোলেন। বিশেষজ্ঞ থেকে বিরোধীরা প্রথম থেকেই বলছেন, দেশে পরীক্ষা কম হচ্ছে বলেই আক্রান্তের সংখ্যা কম। পরীক্ষা বেশি হলে দেখা যাবে, সংখ্যাও বেশি। সরকার এখন বেশ কিছু বেসরকারি হাসপাতাল, ল্যাবরেটরিতেও পরীক্ষার অনুমতি দিয়েছে। কংগ্রেসের গুলাম নবি আজাদ প্রধানমন্ত্রীকে জানান, এত খরচ হলে কম লোকই পরীক্ষা করাতে চাইবেন।

পর্যাপ্ত পিপিই পাওয়া যাচ্ছে না বলে ইতিমধ্যেই অভিযোগ উঠছে। কেন্দ্রকে আজ সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ, যে-সব ডাক্তার-সহ যে সব স্বাস্থ্যকর্মী করোনা-আক্রান্তদের চিকিৎসায় যুক্ত, তাঁদের জন্য পিপিই নিশ্চিত করতে হবে। লকডাউন চলাকালীন জরুরি মামলার কথা বেঞ্চকে জানানোর জন্য আজ একটি হেল্পলাইন চালু করেছে সুপ্রিম কোর্ট।     

 

(অভূতপূর্ব পরিস্থিতি। স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিয়ো আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিনfeedback@abpdigital.in ঠিকানায়। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।) 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন