প্রকাশ্যে শৌচকর্ম সারার কারণে এ বার মধ্যপ্রদেশে দুই খুদেকে পিটিয়ে মারার অভিযোগ উঠল। নিহত দু’জনই দলিত সম্প্রদায়ের বলে জানা গিয়েছে। এই ঘটনায় দু’জনকে গ্রেফতার করেছে মধ্যপ্রদেশ পুলিশ।

বুধবার মধ্যপ্রদেশের শিবপুরী জেলার ভাওখেড়ী গ্রামে এই ঘটনাটি ঘটেছে। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ১০ বছর বয়সী খুড়তুতো ভাই অবিনাশকে নিয়ে পঞ্চায়েত অফিসের কাছে শৌচকর্ম সারতে গিয়েছিল ১২ বছরের রোশনি।

সেই সময় তাদের উপর চড়াও হাকিম যাদব এবং রামেশ্বর যাদব নামের ওই এলাকারই বাসিন্দা দুই যুবক। ছেলেমেয়ে দু’টিকে লাঠি দিয়ে পেটাতে শুরু করে তারা। তাতে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে রোশনি ও অবিনাশ। সেই অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যান স্থানীয় মানুষ। কিন্তু সেখানে ওই দুই খুদেকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।

আরও পড়ুন: মধ্যপ্রদেশে হানিট্র্যাপে বিজেপি নেতারা! অভিযোগ ওঠায় অস্বস্তিতে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব​

অবিনাশের বাবা মনোজ বাল্মীকি পেশায় দিনমজুর। স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে তিনি জানিয়েছেন, বাড়িতে শৌচাগার না থাকাতেই বাইরে শৌচকর্ম সারতে গিয়েছিল ছেলেমেয়ে দু’টি। মনোজ বাল্মীকির দাবি, হাকিম যাদব এবং রামেশ্বর যাদব দুই ভাই। তাদের জমির কাছে একটি গাছের ডাল কাটা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে দু’পক্ষের মধ্যে শত্রুতা। সেই সময় দেখে নেবে বলে হুমকি দিয়েছিল। আগেও এক বার ছেলেমেয়ে দু’টিকে ধমক দিয়েছিল তারা। তার পরেই এই ঘটনা।

নিহতদের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্ত দু’জনকেই গ্রেফতার করেছে সিরসোদ থানার পুলিশ। তবে প্রকাশ্যে শৌচকর্ম সারাতে ওই ছেলেমেয়ে দু’টিকে মেরে ফেলার অভিযোগ খারিজ করেছেন গ্বালিয়র রেঞ্জের আইজি রাজাবাবু সিংহ। তাঁর দাবি, হাকিম মানসিক ভারসাম্যহীন। দাদুর বাড়ি যাওয়ার পথে ওই ছেলেমেয়ে দু’টিকে পিটিয়ে মারে সে। পুরনো শত্রুতার দাবিও উড়িয়ে দেন তিনি। 

আরও পড়ুন: জঙ্গিদের একে-৪৭ সরবরাহ করতে পঞ্জাবের আকাশে ঘুরছে পাক ড্রোন!​

গণপিটুনি ও পিটিয়ে মারার ঘটনা রুখতে কয়েক মাস আগেই মধ্যপ্রদেশ বিধানসভায় বিশেষ বিল পাশ হয়েছিল। তাতে দোষী সাব্যস্তদের যাবজ্জীবন কারাবাস এবং ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত জরিমানার নির্দেশ রয়েছে। তার পরেও এই ঘটনায় রাজ্যের শাসনব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।