• নিজস্ব সংবাদদাতা 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

দাদিদের মিছিল যেতেই দিল না অমিতের পুলিশ

Rally
মিছিলের অভিমুখ অমিত শাহের বাসভবনের দিকে। ছবি পিটিআই।

অমিত শাহের কোর্টে এ বার বল ঠেলে দিলেন শাহিন বাগের দাদিরা! 

আজ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের নিয়ন্ত্রণাধীন দিল্লি পুলিশের মাধ্যমে অমিত শাহকে বার্তা দিয়ে শাহিন বাগ জানাল, তারা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে চায়। দিল্লি পুলিশও আশ্বাস দিয়ে জানিয়েছে, ওই আবেদন সঠিক জায়গায় পৌঁছে দেবে তারা। এখন দেখার— আগামী তিন দিনের মধ্যে অমিত শাহ ওই আন্দোলনকারীদের সঙ্গে দেখা করেন কি না। এরই মধ্যে আজ শাহিন বাগে রাস্তা আটকে ধর্নার বিরুদ্ধে মামলা শুনবে সুপ্রিম কোর্ট।

দিন কয়েক আগে অমিত শাহ বৈদ্যুতিন সংবাদমাধ্যমে শাহিন বাগের সঙ্গে আলোচনায় বসার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন। সেই সূত্র ধরেই আন্দোলনকারীদের একাংশ গতকাল জানান, রবিবার বেলা দু’টোয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে যাবেন তাঁরা। কিন্তু প্রতিনিধি দলের নেতৃত্বে কে বা কারা থাকবেন, তা নিয়ে কাল রাত পর্যন্ত চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে ব্যর্থ হয় শাহিন বাগ। শেষে ঠিক হয়, বর্ষীয়ান মহিলা আন্দোলনকারীদের সামনে রেখেই একটি মিছিল অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করতে তাঁর বাসভবনে যাবে। সেই মতো প্রস্তুতি শুরু করে শাহিন বাগ। 

সকাল থেকেই ভিড় জমতে শুরু করেছিল শাহিন বাগে। মিছিলের প্রস্তুতির খবর পেয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক আজ সকালে ফের স্পষ্ট করে দেয় যে, অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করতে চেয়ে কোনও প্রতিনিধি দল সময় চায়নি। এ ভাবে আগে থেকে সময় না চেয়ে কারও পক্ষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করা সম্ভব নয়। 

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের বার্তা সত্ত্বেও মিছিল করে অমিত শাহের বাসভবনে যাওয়ার প্রশ্নে অনড় থাকেন আন্দোলনকারীরা। তাঁদের মনোভাব বুঝে কোনও ঝুঁকি না নিয়ে শাহিন বাগ-সংলগ্ন সরিতা বিহার এলাকার রাস্তা সম্পূর্ণ আটকে দেয় দিল্লি পুলিশ। ব্যারিকেড পার হয়ে কেউ যাতে আসতে না পারেন তার জন্য ত্রিস্তরীয় সুরক্ষাব্যবস্থা তৈরি করা হয়। বেলা দু’টো নাগাদ শাহিন বাগের প্রতিবাদকারীরা কয়েকশো মিটার এগোতেই প্রথম ব্যারিকেডে আটকে যান। আন্দোলনকারীদের পুলিশ জানায়, এ ভাবে মিছিল করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করা সম্ভব নয়। ডিসিপি (দক্ষিণ-পূর্ব) আর পি মিনা বলেন, ‘‘প্রায় চার-পাঁচ হাজার মহিলা মিছিল করে যাওয়ার অনুমতি চেয়েছিলেন। পুলিশের পক্ষ থেকে সেই অনুমতি দেওয়া হয়নি। তবে ভবিষ্যতে যদি আন্দোলনকারীদের প্রতিনিধি দল উচ্চ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে দেখা করতে চায়, তা হলে পুলিশ সেই ব্যবস্থা করে দেবে।’’

সূত্রের মতে, তার পরেই আন্দোলনকারীদের পক্ষ থেকে পুলিশের মাধ্যমে অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করার জন্য আবেদন জানানো হয়। সংবাদমাধ্যমে অমিত শাহ দাবি করেছিলেন, তাঁর কাছে সময় চাওয়ার তিন দিনের মধ্যে তিনি শাহিন বাগের আন্দোলনকারীদের সঙ্গে দেখা করবেন। এখন তিনি সে কথা রাখেন কি না সে দিকেই নজর থাকবে দেশের।

তবে প্রতিনিধি দলে কত জন থাকবেন, তা নিয়ে এখনও দ্বিধাবিভক্ত শাহিন বাগ। পুলিশের পরামর্শ মেনে এক পক্ষ ছোট প্রতিনিধি দল নিয়ে অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করতে পক্ষপাতী। অন্য দিকে আন্দোলনের শুরুর দিন থেকে যুক্ত থাকা শিক্ষিকা নাজিয়া খানের বক্তব্য, ‘‘বন্ধ ঘরে শুধু ১০-১৫ জন কেন কথা বলবে? যাঁরা ধর্নায় বসে রয়েছেন, তাঁদের প্রত্যেকের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার অধিকার রয়েছে।’’ 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন