প্রাক্তন কেন্দ্রীয় টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী এ রাজা ও করুণানিধি-কন্যা ডিএমকে সাংসদ কানিমোঝি সহ অভিযুক্ত ১৯ জনের বিরুদ্ধে দিল্লি হাইকোর্টে ফের টুজি স্পেকট্রাম মামলা শুরুর আর্জি জানাল এনফোর্সমেন্ট ডাইরেক্টরেট (ইডি)।

গত ডিসেম্বরে ইডি’র দায়ের করা ওই মামলায় অভিযুক্ত ১৯ জনকেই বেকসুর খালাস ঘোষণা করে সিবিআই আদালত। বিচারপতি ও পি সাইনি অভিযুক্তদের বেকসুর খালাস ঘোষণা করে জানিয়েছিলেন, অভিযোগ প্রমাণের জন্য ‘নথিপত্রের যথেষ্টই অভাব’ ছিল। সোমবার দিল্লি হাইকোর্টে সেই রায়কেই চ্যালেঞ্জ জানাল ইডি। অভিযোগ, টুজি স্পেকট্রাম বণ্টনের ক্ষেত্রে ৩০ হাজার কোটি টাকার দুর্নীতি হয়েছিল।

ইডি’র এক পদস্থ কর্তা এ দিন জানান, গত ডিসেম্বরে সিবিআই আদালতের বিশেষ বিচারপতি ও পি সাইনির দেওয়া রায়কে চ্যালেঞ্জ জানানোর জন্য যাবতীয় নথিপত্র জমা দেওয়া হবে দিল্লি হাইকোর্টে।

আরও পড়ুন- চিনা হ্যাকারদের টার্গেট হোয়াটসঅ্যাপ, সতর্কবার্তা ভারতীয় সেনার​

আরও পড়ুন- কৌস্তুভ ও শিবাজিকে আরও চার দিনের সিবিআই হেফাজত​

ওই মামলায় রাজা ও কানিমোঝি ছাড়াও অভিযুক্তদের মধ্যে রয়েছেন প্রাক্তন টেলিকম সচিব সিদ্ধার্থ বেহুরা, রাজার এক সময়ের ব্যক্তিগত সচিব আর কে চান্দোলিয়া, সোয়ান টেলিকমের দুই প্রোমোটার শাহিদ উসমান বালওয়া ও বিনোদ গোয়েঙ্কা, ইউনিটেক লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর সঞ্জয় চন্দ্র এবং রিলায়্যান্সের তিন এগজিকিউটিভ গৌতম দোশী, সুরেন্দ্র পিপারা ও হরি নায়ার।