বিজেপির জামাই রাজা! 

সনিয়া গাঁধীর জামাই রবার্ট বঢরার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে বিজেপি যখন কংগ্রেসের অস্বস্তি বাড়াতে মরিয়া, তখনই গেরুয়া শিবিরের অস্বস্তি বাড়ালেন ছত্তীসগঢ়ে বিজেপির তিন বারের মুখ্যমন্ত্রী রমন সিংহ। প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর জামাই পুনীত গুপ্তের বিরুদ্ধে সরকারি ক্ষমতার অপব্যবহার করে বিপুল পরিমাণ অর্থ তছরুপের অভিযোগ উঠেছে। তাঁর বিরুদ্ধে জালিয়াতি ও প্রতারণার মামলা দায়ের করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে বিজেপিকে কটাক্ষ করতে ছাড়ছে না কংগ্রেস। 

দেড় দশক ধরে ক্ষমতাসীন ছত্তীসগঢ়ে ক’দিন আগেই কংগ্রেসের কাছে বিপুল ব্যবধানে হেরেছে বিজেপি। লোকসভায় দল যখন হাওয়া ঘোরাতে মরিয়া, তখনই রমন সিংহের জামাইয়ের বিরুদ্ধে ওই দুর্নীতির মামলা বিজেপির বিড়ম্বনা বাড়িয়েছে। অভিযোগ, ছত্তীসগঢ়ের ডিকেএস হাসপাতালের সুপার থাকাকালীন পুনীত এবং কয়েক জন মিলে প্রায় ৫০ কোটি টাকার দুর্নীতিতে জড়িয়েছেন। ফলে রাজ্য কোষাগারেরও বিপুল ক্ষতি হয়েছে। পুনীতের বিরুদ্ধে হাসপাতালের বর্তমান সুপার কমল কিশোর সাহারে থানায় অভিযোগ করার পরে তদন্তে নামে পুলিশ। রাজপুরের অ্যাডিশনাল এসপি প্রফুল্ল ঠাকুর জানিয়েছেন, নিয়ম ভেঙে হাসপাতালে নিয়োগ করা নিয়ে অভিযোগ ওঠায় তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কমিটি জানায়, পুনীত অন্তত ৫০ কোটি টাকা জালিয়াতির সঙ্গে যুক্ত। তার পরেই পুনীত এবং তাঁর সহকারীদের বিরুদ্ধে একাধিক ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

দিল্লি দখলের লড়াইলোকসভা নির্বাচন ২০১৯ 

গত ডিসেম্বরে রাজ্যে পালাবদলের পরে পুনীতকে রায়পুর মেডিক্যাল কলেজে বদলি করা হয়। গত মাসে এক কংগ্রেস নেতা তাঁর বিরুদ্ধে ২০১৪-য় অন্তাগড় বিধানসভার উপনির্বাচনে দুর্নীতির অভিয়োগ আনেন। তার পরেই পদত্যাগ করেন পুনীত। তাঁকে অবশ্য এখনও গ্রেফতার করা হয়নি।