আগে মুসলিমদের খুন হওয়া আটকান, মোদীকে বিঁধলেন ওয়াইসি
বিজেপি দেশে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়ার ঠিক পরেই ফের ‘গোরক্ষকদের’ তাণ্ডবের অভিযোগ উঠেছে মধ্যপ্রদেশে। সিওনীতে গোমাংস নিয়ে যাওয়ার ‘অপরাধে’ এক দম্পতি-সহ তিন জনকে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে পাঁচ জন ‘গোরক্ষকে’র বিরুদ্ধে।
asaduddin owaisi

—ফাইল চিত্র।

বিজেপি জমানা নিয়ে সংখ্যালঘুদের মিথ্যে ভয় দেখানো হচ্ছে বলে দাবি করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। জানিয়েছেন, তাঁর সরকার সকলকে সঙ্গে নিয়ে চলার পক্ষপাতী। কিন্তু আজ তথাকথিত ‘গোরক্ষকদের’ তাণ্ডব নিয়ে মোদীকে বিঁধলেন  এআইএমআইএম নেতা আসাদুদ্দিন ওয়াইসি। তাঁর প্রশ্ন, মোদী এই ধরনের গোষ্ঠীর তাণ্ডব রুখতে কী পদক্ষেপ করছেন?

বিজেপি দেশে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়ার ঠিক পরেই ফের ‘গোরক্ষকদের’ তাণ্ডবের অভিযোগ উঠেছে মধ্যপ্রদেশে। সিওনীতে গোমাংস নিয়ে যাওয়ার ‘অপরাধে’ এক দম্পতি-সহ তিন জনকে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে পাঁচ জন ‘গোরক্ষকে’র বিরুদ্ধে। তার পরে আক্রান্ত তিন জনকেও গ্রেফতার করা হয়েছে। কারণ, মধ্যপ্রদেশে গোম‌াংস রাখা বা বিক্রি করা বেআইনি। 

আজ ওয়াইসি বলেন, ‘‘সংবিধানে মানুষের জীবনের অধিকার স্বীকৃত, পশুর নয়। প্রধানমন্ত্রী যদি মনে করেন সংখ্যালঘুরা ভয়ে ভয়ে আছেন তাহলে তাঁর জানা উচিত উত্তরপ্রদেশের দাদরিতে যারা মহম্মদ আখলাককে পিটিয়ে মেরেছিল তারা একটি নির্বাচনী জনসভার প্রথম সারিতে বসেছিল।’’ ২০১৫ সালে দাদরিতে বাড়িতে গোমাংস রাখার ‘অপরাধে’ মহম্মদ আখলাককে পিটিয়ে মারার অভিয‌োগ উঠেছিল। সেই ঘটনায় ১৪ জন গ্রেফতার হয়। তাদের মধ্যে ১২ জন জামিন পেয়েছে।

ওয়াইসির প্রশ্ন, ‘‘প্রধানমন্ত্রী এই ধরনের গোষ্ঠীগুলিকে রুখতে কী ব্যবস্থা নিচ্ছেন? এই গোষ্ঠীগুলি মুসলিমদের পিটিয়ে খুন করছে। সেই ঘটনার ভিডিয়ো পর্যন্ত তুলে রাখছে। আমাদের চূড়ান্ত অপমান করা হচ্ছে। মধ্যপ্রদেশের ঘটনাই এর সাম্প্রতিক নজির।’’ 

তাঁর বক্তব্য, ‘‘সংসদে মুসলিমদের প্রকৃত প্রতিনিধিত্বের বিষয়ে কি বিজেপি উদ্যোগী হয়েছে? প্রধানমন্ত্রীর নিজের দলের সাংসদের সংখ্যা এখন ৩০০ জনের বেশি। কিন্তু তাঁদের মধ্যে ক’জন মুসলিম?’’ লোকসভা ভোটে গেরুয়া ঝড়ের মধ্যে হায়দরাবাদ কেন্দ্রে ফের জয়ী হয়েছেন ওয়াইসি।

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত