• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

অসমে ট্রেনে হেনস্থা, অভিযোগ শিয়ালদহে

train
প্রতীকী ছবি।

সংরক্ষিত কামরায় অতিরিক্ত যাত্রী তোলার প্রতিবাদ করায় রেল পুলিশের কনস্টেবলের হাতে হেনস্থা হলেন শিলচরের এক মহিলা যাত্রী। অভিযোগ, তাঁকে অশালীন কথাবার্তা বলা থেকে ধাক্কাধাক্কি পর্যন্ত করে মীর হোসেন আলি নামে অসম জিআরপি-র ওই কনস্টেবল। অন্য যাত্রীরা মহিলার সমর্থনে গেলে রঙ্গিয়া স্টেশনে নেমে যায় অভিযুক্ত। অভিযোগ জানাতে গিয়ে হয়রান হতে হয় যাত্রী শ্বেতা রায়কে। আজ শিয়ালদহ স্টেশনে এফআইআর দায়ের করেন ওই যাত্রী। 

শ্বেতা জানান, সোমবার তিনি শিলচর থেকে কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেসে রওনা হন। কামাখ্যা স্টেশনে পৌঁছলে কনস্টেবল মীর হোসেন আলি জেনারেল টিকিটের যাত্রীদের সংরক্ষিত কামরায় তুলে দিচ্ছিলেন। প্রতিবাদ করায় মীর হোসেন শ্বেতাকে বলেন, ‘‘এটা কি তোমার বাবার ট্রেন।’’ এক সময় তিনি ওই শ্বেতাকে ধাক্কা মারেন বলেও অভিযোগ। তাতে ক্ষেপে যান কামরার অন্য যাত্রীরাও। ইউনিফর্মের নেমপ্লেট দেখতে গেলে তিনি তা ছিড়ে জানলা দিয়ে ফেলে দেন। ভিডিও হচ্ছে বুঝে রঙ্গিয়া স্টেশনে নেমে যায় মীর হোসেন।

অভিযোগ জানাতে গেলে রঙ্গিয়ার স্টেশনমাস্টার বলেন, নিউ বঙ্গাইগাঁও স্টেশনে যেতে। সেখানে গিয়ে শোনেন, তাঁরা শুধু হারানো-প্রাপ্তির অভিযোগই নেন। টুইটারে রেলমন্ত্রী-সহ বিভাগীয় কর্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়। শেষে ফরাক্কায় রেলকর্তারা ট্রেনে উঠে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন।

মঙ্গলবার রাতে শিয়ালদহ স্টেশনের জিআরপি তাঁকে পরদিন আসতে বলে। আজ দুপুর থেকে বসে থেকে বিকেল চারটেয় এফআইআর দায়ের করেন শ্বেতা।

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও।সাবস্ক্রাইব করুনআমাদেরYouTube Channel - এ।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন