রাফাল যুদ্ধবিমান চুক্তি মামলায় নিজেদের অনুকূলে রায় পাওয়ার জন্য নরেন্দ্র মোদীর সরকার সুপ্রিম কোর্টে বিভ্রান্তিকর এবং ভুল তথ্য দিয়েছিল বলে অভিযোগ করলেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী যশবন্ত সিন্হা, অরুণ শৌরি এবং আইনজীবী প্রশান্ত ভূষণ। প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চে আগামিকাল, শুক্রবার ওই মামলার শুনানি হবে।

শীর্ষ আদালতে আজ যশবন্ত, শৌরি এবং প্রশান্ত ভূষণের তরফে অতিরিক্ত হলফনামা দায়ের করা হয়েছে। ওই হলফনামায় বলা হয়েছে, রাফাল মামলা নিয়ে গত ডিসেম্বরে যে রায় দেওয়া হয়েছে, তা আদালত পুনর্বিবেচনা করুক। তাঁদের অভিযোগ, ওই সময় কেন্দ্র আদালতে একাধিক ‘ভুল তথ্য দিয়েছে এবং অনেক তথ্য গোপন করেছে’। তার ভিত্তিতেই রায় দিয়েছিল শীর্ষ আদালত। এখনও সরকার রাফাল নিয়ে অনেক তথ্যই আদালতের সামনে আনছে না। হলফনামায় আরও বলা হয়েছে, ‘‘এটা পরিষ্কার যে বন্ধ খামে আদালতে সরকার যে তথ্য পেশ করেছে, তা বিভ্রান্তিকর। সরকার এখনও রাফাল নিয়ে প্রাসঙ্গিক তথ্য কোর্টে গোপন করছে। কারণ, তাদের লক্ষ্য নিজেদের অনুকূল রায় পাওয়া।’’

কেন্দ্র অবশ্য আদালতে জানিয়েছিল, তিনটি কারণে ডিসেম্বরের রায়ের পুনর্বিবেচনার প্রয়োজন নেই। কেন্দ্রের যুক্তি ছিল, বিষয়টির সঙ্গে দেশের নিরাপত্তার প্রশ্ন জড়িত। দ্বিতীয়ত, সংবাদমাধ্যমের রিপোর্টের ভিত্তিতে দুর্নীতির অভিযোগ করা হচ্ছে এবং তৃতীয়ত, সিএজির চূড়ান্ত রিপোর্টে রাফাল চুক্তি নিয়ে কোনও অনিয়ম পাওয়া যায়নি। আবেদনকারীরা জানান, কেন্দ্রের এই যুক্তি কোনও ভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

দিল্লি দখলের লড়াইলোকসভা নির্বাচন ২০১৯