• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

এ বার কি হিন্দু তাস

Thakur
সাধ্বী প্রজ্ঞা ঠাকুর।—ছবি পিটিআই।

Advertisement

কপালে তিলক। গেরুয়া বসন, গলায় রুদ্রাক্ষের মালা। কাল রাতে প্রাক্তন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পি চিদম্বরমকে সিবিআই গ্রেফতার করার পর নিজের একটি ছবি টুইট করলেন সাধ্বী প্রজ্ঞা ঠাকুর। সঙ্গে লিখলেন, ‘‘প্রভুর এখানে ন্যায় তো হবেই!’’

মালেগাঁও বিস্ফোরণ কাণ্ডে অভিযুক্ত সাধ্বী প্রজ্ঞা। অনেক বারই অভিযোগ করেছেন, চিদম্বরম স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী থাকার সময়ে তাঁকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হয়েছে। কিন্তু গত কাল চিদম্বরমের গ্রেফতারের পর সুকৌশলে হিন্দুত্বের তাসটি খেলতে শুরু করেছে গেরুয়া শিবির। সোশ্যাল মিডিয়ায় চিদম্বরমকে মেলে ধরা হচ্ছে ‘হিন্দু-বিরোধী’ বলে। তাঁদের অনেকের বক্তব্য, ‘‘এক সময়ে সাদ্দাম হুসেনও হাজার মানুষকে হত্যা করেছেন। তাঁকেও শেষে খুঁজে পাওয়া গেল। আর যে ব্যক্তি কোটি কোটি হিন্দুর বদনাম করেছেন, হিন্দুদের সন্ত্রাসবাদী বলেছেন যিনি, তিনিও ‘চোর’-এর মতো পালাচ্ছিলেন। অবশেষে গ্রেফতার করা হয়েছে।’’ বিজেপি শিবিরের মতে, আগামী কয়েক দিনে দেখা হবে, তদন্তকারী সংস্থাগুলি চিদম্বরমকে নিয়ে কী ভাবে এগোয়। তার পরে স্থির হবে, এই প্রচারকে কী ভাবে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায়।

দলের এক নেতার কথায়, অমিত শাহ বার বার বলেছেন, হিন্দুদের সন্ত্রাসবাদী তকমা সেঁটে দেওয়ার পিছনে চিদম্বরমদের মতো নেতাদের হাত রয়েছে। কাল থেকে অবশ্য কংগ্রেস অভিযোগ করছে, চিদম্বরমকে জেলে পাঠানোর পিছনে অমিত শাহের বদলার মনোভাবই কাজ করছে। আজ তা খণ্ডন করতে সামনে আসেন মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর। তাঁর বক্তব্য, ‘‘দুর্নীতি আর কংগ্রেস সমার্থক। কয়লা কেলেঙ্কারি, কমনওয়েলথ গেমস, ‘টুজি-থ্রিজি-জিজাজি’। কিন্তু চিদম্বরম পালাচ্ছিলেন কেন?’’

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন