দিল্লির একটি পাঁচতারা হোটেলে এসে ঢুকলেন এক বড় ব্যবসায়ী। একটি সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর। ব্যবসার কাজে দিনদু’য়েক থাকবেন বলে হোটেলের একটি রুম নিলেন। পরের দিন সন্ধ্যায় সেই হোটেলের রিসেপশনে পৌঁছে গেলেন দারুণ সুন্দরী দুই মহিলা। রিসেপশনে গিয়ে আগের দিন হোটেলে চেক-ইন করা ওই ব্যবসায়ীর নামটা বললেন সুন্দরী মহিলারা। রিসেপশন থেকে ফোন গেল রুমে। কিছু ক্ষণের মধ্যেই তাঁর রুম ‘লক’ করে লিফ্টে চেপে রিসেপশনে নেমে এলেন সেই ব্যবসায়ী। হোটেলের বাইরেই রাখা ছিল একটি গাড়ি। সেই গাড়িতে চেপে দুই সুন্দরী মহিলার সঙ্গে উধাও হয়ে গেলেন একটি সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর সেই ব্যবসায়ী।

তার এক দিন পর ওই ম্যানেজিং ডিরেক্টরের সংস্থা থেকে ফোন গেল পুলিশের কাছে। ‘‘ওঁকে পাওয়া যাচ্ছে না। প্লিজ একটু দেখুন।’’

মহিলার টোপ (হানি ট্র্যাপ) দিয়ে একটি মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টরকে অপহরণ করার অভিযোগে ৪ মহিলা-সহ ৬ জনকে গ্রেফতার করল দিল্লি পুলিশ, রবিবার। পুলি‌শ জানাচ্ছে, মুক্তিপণ আদায়ের লক্ষ্যে অপহৃত ম্যানেজিং ডিরেক্টরকে দিল্লির লক্ষ্মী নগরে একটি বাড়িতে বন্দি করে রাখা হয়। দাবি করা হয় ৩০ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ।

তাঁদের সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টরের খোঁজ মিলছে না বলে ওই মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং সংস্থার এক সিনিয়র ম্যানেজারের কাছ থেকে পুলিশ ফোন পায় গত শুক্রবার রাত ১১টা নাগাদ। তার পর পুলিশ তদন্ত করে জানতে পারে, গত বৃহস্পতিবার রাতে ওই ম্যানেজিং ডিরেক্টর দিল্লির একটি পাঁচ তারা হোটেলে চেক-ইন করেন। হোটেলের সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গিয়েছে, শুক্রবার সন্ধ্যায় দুই সুন্দরী মহিলা সেই হোটেলের রিসেপশনে পৌঁছন। আর তার কি‌ছু ক্ষণ পর অপহৃত ম্যানেজিং ডিরেক্টরকে ওই দুই মহিলার সঙ্গে হোটেল ছেড়ে বেরিয়ে যেতে দেখা যায়। তাঁদের একটি গাড়িতে চেপে ওই এলাকা থেকে দ্রুত চলে যেতে দেখা যায়।

সিসিটিভির ফুটেজ থেকে গাড়িটির নম্বর প্লেট জানা যায়। তার ভিত্তিতে পাওয়া যায় গাড়িটির রেজিস্ট্রেশন নম্বরও। পুলিশ সেই সব তথ্য পাঠিয়ে দেয়  দিল্লি পুলিশের ডিস্ট্রিক্ট কন্ট্রোল রুম ও পিসিআর ভ্যানগুলিতে। ৩০ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ চেয়ে যে ফোন এসেছিল অপহরণকারীদের কাছ থেকে তার উপর নজর রাখতে শুরু করে পুলিশ।

আরও পড়ুন- দুবাইতে পাচার হয়ে গিয়েছে মেয়েটি, তার পর...?​

আরও পড়ুন- ফেসবুকে বন্ধুত্ব পাতিয়ে ৯ লাখ টাকা গেল প্রৌঢ়ের​

রাতভর তল্লাশি আর অপহরণকারীদের মোবাইল ফোনের নম্বরটির উপর কড়া নজর রেখে পুলিশ জানতে পারে দিল্লির লক্ষ্মী নগরেরই একটি বহুতল বাড়ির একটি ফ্ল্যাটে আটকে রাখা হয়েছে অপহৃত ম্যানেজিং ডিরেক্টরকে। রবিবার ভোর ৬টা নাগাদ বাড়িটিতে হানা দিয়ে পুলিশ উদ্ধার করে অপহৃতকে।

দিল্লি পুলিশের অতিরিক্ত ডেপুটি কমিশনার আইশ সিঙ্ঘল বলছেন, ‘‘৪ মহিলা-সহ ৬ জন অপহরণকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।’’ পুলিশ অবশ্য ওই অপহৃত ম্যানেজিং ডিরেক্টরের নামধাম জানাতে চায়নি।

উদ্ধার হওয়ার পর এক বিবৃতিতে ওই ম্যানেজিং ডিরেক্টর জানিয়েছেন, ব্যবসার কাজে তিনি মুম্বই থেকে গিয়েছিলেন দিল্লিতে। শুক্রবার সন্ধ্যায় তিনি তাঁর এক পূর্ব পরিচিত মহিলার ফোন পান। জানান, তাঁর জন্য অপেক্ষা করছেন হোটেলের রিসেপশনে। ফোন পেয়ে রিসেপশনে পৌঁছে দেখেন, ওই মহিলার সঙ্গে রয়েছেন আরও এক মহিলা। দ্বিতীয় মহিলাকে তিনি চিনতেন না। পূর্ব পরিচিত মহিলা ওই ম্যানেজিং ডিরেক্টরকে বলেন, আর এক মহিলা তাঁর ঘনিষ্ঠ বন্ধু। ওঁরা তাঁকে দিল্লির লক্ষ্মী নগরে দ্বিতীয় মহিলার বাড়িতে নিয়ে যেতে চান। গাড়িও নিয়ে এসেছেন। তখন তাঁদের আবদার ফেলতে না পেরে তিনি রওনা হয়ে যান ওই দুই মহিলার সঙ্গে।

এই চক্রটি এমন আরও কোনও ঘটনায় জড়িত কি না, পুলিশ এখন তা খতিয়ে দেখছে।