পাক বিদেশমন্ত্রকের তরফে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল আগেই। করতারপুর করিডর উদ্বোধনে এ বার আনুষ্ঠানিক ভাবে দেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহকে আমন্ত্রণ জানালেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। বৃহস্পতিবার পাক বিদেশমন্ত্রকের তরফে এমনটাই জানানো হল। তবে মনমোহন সিংহের দফতরের তরফে এখনও পর্যন্ত এ নিয়ে কোনও মন্তব্য করা হয়নি।

আগামী ৯ সেপ্টেম্বর পাকিস্তান মহা সমারোহে করতারপুর করিডরের উদ্বোধন করতে চলেছে। তার আগে এ দিন ইসলামাবাদে সাংবাদিক বৈঠক করেন সে দেশের বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র মহম্মদ ফয়জল। তিনি জানান, ইমরান খানের প্রতিশ্রুতি মতো নির্ধারিত দিনেই করতারপুর করিডরের উদ্বোধন হবে। তার জন্য ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহকে আনুষ্ঠানিক ভাবে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

এর আগে, সেপ্টেম্বরের শেষ দিকে প্রকাশ্যে মনমোহন সিংহকে করতারপুর করিডর উদ্বোধনে আমন্ত্রণ জানান পাক বিদেশমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি। সে বার এক টিভি চ্যানেলে সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘‘পাকিস্তানের পক্ষ থেকে করতারপুর করিডরের উদ্বোধনে মনমোহন সিংহকে আমন্ত্রণ জানাচ্ছি আমি। খুব শীঘ্র আনুষ্ঠানিক ভাবেও নিমন্ত্রণপত্র পাঠানো হবে ওঁকে। উনি এক জন সম্মানীয় নেতা। করতারপুরের সঙ্গে ওঁর ধর্মবিশ্বাস জড়িয়ে।’’

আরও পড়ুন: বাবুল গেলেন ক্যালিফোর্নিয়ার হাসপাতালে, ফেসবুকে আঙুল তুললেন যাদবপুর-কাণ্ডের দিকে​

পুণ্যার্থীদের জন্য তৈরি পঞ্জাবের গুরুদাসপুরের ডেরা বাবা নানক তীর্থক্ষেত্র থেকে পাকিস্তানের করতারপুরের দরবার সাহিব পর্যন্ত বিস্তৃত ওই করিডরের উদ্বোধন ঘিরে ভারতেও প্রস্তুতি তুঙ্গে। তার জন্য ইতিমধ্যেই রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং মনমোহন সিংহকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরেন্দ্র সিংহ। ইতিমধ্যেই সেই আমন্ত্রণ গ্রহণ করেছেন মনমোহন সিংহ। তিনি নিজে এ নিয়ে কোনও মন্তব্য না করলেও, সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ক্যাপ্টেন অমরেন্দ্র সিংহ বলেন, ‘‘আমার তো পাকিস্তানে যাওয়ার প্রশ্নই ওঠে না। মনমোহন সিংহও যাবেন না।।’’

আরও পড়ুন: পঞ্জাবে পাক ড্রোন হানায় পাকিস্তানের হাত ছিল, জানাল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক​

আগামী ১২ নভেম্বর প্রথম শিখ ধর্মগুরু বাবা নানকের ৫৫০তম জন্মবার্ষিকী। তার আগেই করতারপুর করিডরের উদ্বোধন হচ্ছে। এতে হাজার হাজার ভারতীয় পুণ্যার্থী উপকৃত হবেন।