• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

জন্মদিনে রাস্তাতেই কেক কাটা থেকে মদের ফোয়ারা, গুজরাতে অভিযুক্ত বিজেপি নেতা

BJP Gujarat
নেতার জন্মদিনে মদের ফোয়ারা। ছবি: টুইটার থেকে সংগৃহীত।

খাতায় কলমে গুজরাত ‘ড্রাই স্টেট’। অর্থাৎ মদ তৈরি, মজুত, বিক্রি এবং পান করা— সবই নিষিদ্ধ এখানে। তবে পকেটে পয়সা থাকলে যে সবই পাওয়া যায়, তা এ বার প্রমাণ করলে‌ন রাজ্যেরই এক বিজেপি নেতা। সাঙ্গপাঙ্গদের নিয়ে প্রকাশ্যে মদের বোতল খুলে জন্মদিন পালন করার অভিযোগ উঠল তাঁর বিরুদ্ধে।

গুজরাতের মহিসাগর জেলার বিজেপির আহ্বায়ক কওয়ান পটেলের বিরুদ্ধে ওই অভিযোগ উঠেছে। জন্মদিনে তাঁর কেক কাটার একটি ভিডিয়ো ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেখানে দেখা গিয়েছে, রাস্তায় গাড়ির বনেটে বেশ কয়েকটি কেক রাখা। তরোয়াল হাতে তিনি কেক কাটতে এগোলে বিয়ারের বোতল খুলে তাঁকে ভিজিয়ে দিচ্ছেন একদল যুবক।

শুধু তাই নয়, করোনার প্রকোপে এই মুহূর্তে গোটা রাজ্য ধুঁকলেও, ওই ভিডিয়োয় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে দেখা যায়নি কাউকেই। কওয়ান এবং সেখানে উপস্থিত কারও মুখেই মাস্ক দেখা যায়নি। কওয়ানের পাশে ওই ভিডিয়োয় জেলা বিজেপির সভাপতি যোগেন্দ্র মেহরাকেও দেখা গিয়েছে। দলের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে একাধিক জনসভায় দেখা গিয়েছে দু’জনকেই।

এই ভিডিয়োই ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

আরও পড়ুন: ইন্দিরা-বাজপেয়ীকেও হারতে হয়েছে, বিজেপিকে স্মরণ করালেন পওয়ার​

বিষয়টি সামনে আসতেই শোরগোল পড়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। গুজরাত বিজেপি এবং মহিসাগরের পুলিশকে ট্যাগ করে ভিডিয়োটি রিটুইট করেন অনেকে। তাতেই টনক নড়ে পুলিশের। গোটা ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ৭ জনকে গ্রেফতার করেছে তারা। তবে কওয়ান এবং যোগেন্দ্রর বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ করা হয়েছে কি না, তা এখনও জানা যায়নি।

আরও পড়ুন: বিধায়ক ভাঙাতে কোটি কোটি টাকার টোপ বিজেপির: অশোক গহলৌত​

গোটা ঘটনায় বিজেপিকে একহাত নিয়েছেন গুজরাত প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি অমিত ছাবড়া। তিনি বলেন, ‘‘গুজরাতে মদ নিষিদ্ধ হওয়া সত্ত্বেও রাস্তায় মদের বোতল নিয়ে হুল্লোড় করছেন বিজেপির জেলা আহ্বায়ক ও দলের সদস্যরা। করোনা সঙ্কটে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশও লঙ্ঘন করেছেন তাঁরা।’’ তবে রাজ্য বিজেপির তরফে এ নিয়ে এখনও পর্যন্ত কোনও সাফাই দেওয়া হয়নি।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন