আইএনএক্স মিডিয়া দুর্নীতি মামলায় রাজসাক্ষী হতে চান ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায়। প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম ও তাঁর পুত্র কার্তি ওই মামলায় অভিযুক্ত হিসেবে রয়েছেন। আজ কার্তিকে জেরাও করেছে ইডি। আগামিকাল এই মামলায় চিদম্বরমকেও জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারেন ইডির আধিকারিকেরা।
কন্যা শিনা বরা হত্যায়  অভিযুক্ত ইন্দ্রাণী এই মুহূর্তে মহারাষ্ট্রের বাইকুল্লা জেলে বন্দি। সেখান থেকেই আজ ভিডিয়ো কনফারেন্সে দিল্লিতে বিশেষ সিবিআই আদালতের বিচারক সুনীল রাণাকে তিনি বলেন, আইএনএক্স মামলায় প্রতিনিধিত্বের জন্য কোনও আইনজীবী নিয়োগ করেননি তিনি। তবে এই মামলায় তিনি রাজসাক্ষী হতে চান। এ জন্য তাঁকে কোনও আইনজীবীর সাহায্য দেওয়ার ব্যবস্থা করা হোক। 
আইএনএক্স মিডিয়ার প্রাক্তন ডিরেক্টরের আর্জি শোনার পরে ইন্দ্রাণীর এক জন আইনজীবীর ব্যবস্থা করতে দিল্লি লিগ্যাল সার্ভিসেস অথরিটিকে নির্দেশ দিয়েছে কোর্ট। আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি ওই মামলার শুনানি। 
২০০৭ সালে আইএনএক্স মিডিয়াকে ৩০৫ কোটি টাকার বিদেশি বিনিয়োগ নিতে যে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছিল, তাতেই দুর্নীতির অভিযোগ এনেছে সিবিআই ও ইডি। নাম জড়িয়েছে তৎকালীন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী চিদম্বরম ও তাঁর পুত্র কার্তির। এ নিয়ে রাজনৈতিক টানাপড়েনও চলেছে বিস্তর। অনেকেই মনে করছেন, ইন্দ্রাণী রাজসাক্ষী হলে চিদম্বরমদের উপর চাপ আরও বাড়তে পারে। ইডি আগেই আইএনএক্স মিডিয়ার প্রতিষ্ঠাতা পিটার মুখোপাধ্যায় ও তাঁর স্ত্রী ইন্দ্রাণীর বিরুদ্ধে কালো টাকা লেনদেন প্রতিরোধ আইনে মামলা করেছে।
আইএনএক্স মিডিয়া দুর্নীতি মামলায় এ দিনই দিল্লির ইডির দফতরে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হাজির হয়েছিলেন কার্তি।