কর্নাটকের বিশিষ্ট নাট্যপরিচালক এস রঘুনন্দন সঙ্গীত নাটক অ্যাকাডেমির পুরস্কার প্রত্যাখ্যান করলেন। দেশে ধর্মের নামে একের পর এক গণপ্রহার এবং বিরোধী স্বরকে দমন করার আবহের বিরুদ্ধে ‘হতাশা’ জানিয়েই তাঁর এই পদক্ষেপ। গত কালই এই পুরস্কার ঘোষিত হয়েছিল। এর আগেও মোদী জমানায় অসহিষ্ণুতার বিরুদ্ধে সরব হয়ে বহু বিশিষ্ট জন তাঁদের সরকারি পুরস্কার ফিরিয়ে দিয়েছেন। 

রঘুনন্দন এ দিন বলেন, ‘‘এটা আমার প্রতিবাদ নয়। আমার সিদ্ধান্ত তীব্র হতাশা আর অসহায়তা থেকে। অ্যাকাডেমির প্রতি আমার পূর্ণ শ্রদ্ধা আছে। পুরস্কারপ্রাপকদের প্রতিও শ্রদ্ধা আছে। আমি সকলকে ধন্যবাদ দিয়েই নিজের অপারগতা জানাচ্ছি।’’

অ্যাকাডেমির উদ্দেশে চিঠিতে রঘু লিখেছেন, ‘‘সঙ্গীত নাটক অ্যাকাডেমি স্বশাসিত সংস্থা। সামগ্রিক ভাবে স্বশাসনের নীতিতেই চালিত হয়েছে বরাবর। আমাকে পুরস্কারের জন্য মনোনীত করায় আমি অ্যাকাডেমিকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।...কিন্তু দেশ জুড়ে ধর্মের নামে এমনকি খাদ্য নিয়েও আজ হানাহানি, গণপ্রহার সংঘটিত হচ্ছে। শাসকেরা প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ ভাবে তাতে মদত দিচ্ছেন।...শিক্ষাক্রমের মধ্যে বিদ্বেষ আর অযুক্তির বীজ বুনে দেওয়া হচ্ছে। ভারতীয় কথাটার নামে বদলে যাচ্ছে, বসুধৈব কুটুম্বকমের ধারণা মুছে যাচ্ছে...কানহাইয়া কুমারের মতো তরুণকে দেশদ্রোহী বানানো হচ্ছে, অগণিত বুদ্ধিজীবী এবং সমাজকর্মীকে ইউএপিএ-তে আটক করা হচ্ছে...আমার দেশের নাম করে যখন আমাদের দেশের প্রকৃত ধর্মমার্গীদের প্রতি এই সব অন্যায় হয়ে চলেছে, তখন আমি একজন নাট্যকার ও কবি হিসেবে এই পুরস্কার গ্রহণ করতে পারি না। আমার অন্তর্যামী আমাকে সেই অনুমতি দেয় না।’’

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও।সাবস্ক্রাইব করুনআমাদেরYouTube Channel - এ।