• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে বেতনের ৩০ শতাংশ ছাড়লেন রাষ্ট্রপতি, লাগাম অন্য খরচেও

President
রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে পিএম কেয়ার ফান্ডে এক মাসের বেতন দান করার কথা আগেই ঘোষণা করেছিলেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। এ বার আরও এক ধাপ এগিয়ে বললেন, এক বছরের জন্য নিজের বেতনের ৩০ শতাংশ অর্থ নেবেন না তিনি। এমনকি বিভিন্ন সফর ও রাষ্ট্রপতি ভবনে আনুষ্ঠানিক ভোজের ক্ষেত্রেও খরচে রাশ টানা হবে বলে জানিয়েছেন রামনাথ কোবিন্দ।

বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রপতি ভবনের তরফে একটি বিবৃতিতে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের জন্য লিমুজিন কেনা, সংস্কার, সৌন্দর্যায়ন এবং ভোজসভার খাদ্যতালিকায় কাটছাঁট করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। খরচে লাগাম টানার এই সিদ্ধান্ত নিয়ে ওই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, এই অবদান হয়তো প্রয়োজনের তুলনায় কম, কিন্তু তাৎপর্যপূর্ণ। এর কারণ বাখ্যা করতে গিয়ে লেখা হয়েছে, ‘সরকারের দৃষ্টিভঙ্গি ভারতকে  আন্তনির্ভর করা এবং এই অতিমারির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে গোটা দেশকে উৎসাহ দেওয়া। সেইসঙ্গে সমান্তরাল ভাবে উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির দিকে আমাদের এগিয়ে যাওয়া।’ মোদী সরকারের সেই দৃষ্টিভঙ্গির দিকে তাকিয়েই এই পদক্ষেপ বলে লেখা হয়েছে।

রাষ্ট্রপতির জন্য নতুন লিমুজিন কেনার খরচেও লাগাম টানার কথা বলা হয়েছে ওই বিবৃতিতে। তার বদলে উৎসব ও অনুষ্ঠানের জন্য রাষ্ট্রপতি ভবন ও সরকারের যে সব ‘বর্তমান সামগ্রী’ রয়েছে তা ব্যবহার করতে বলা হয়েছে। এ-ও বলা হয়েছে, সামাদিক দূরত্ব বজায় রাখার বিধি মেনে চলার জন্য অন্তর্দেশীয় সফরও কম করবেন রাষ্ট্রপতি। স্বাধীনতা দিবস বা সাধারণতন্ত্র দিবস-সহ একাধিক গুরুত্বপূর্ণ দিনে রাষ্ট্রপতি ভবনে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

আরও পড়ুন: লকডাউন ওঠার পর স্কুলে ঢোকার পদ্ধতিই বদলে গিয়েছে চিনে

আরও পড়ুন: লন্ডনে সব আইনি রাস্তা প্রায় বন্ধ, বিজয় মাল্যর প্রত্যার্পণ কি সময়ের অপেক্ষা?​

এই কৃচ্ছসাধনে কত টাকা বাঁচতে পারে তার হিসাবও দেওয়া হয়েছে ওই বিবৃতিতে। বলা হয়েছে, চলতি অর্থ বর্ষে রাষ্ট্রপতি ভবনের যা বাজেট তার অন্তত ২০ শতাংশ বাঁচবে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন