২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে বিহারের বেগুসরাই কেন্দ্র থেকে দাঁড়াচ্ছেন জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রসংসদের প্রাক্তন সভাপতি কানহাইয়া কুমার। বিহার সিপিআইয়ের সাধারণ সম্পাদক সত্যনারায়ণ সিংহ জানিয়েছেন, প্রাথমিক ভাবে দলের এই সিদ্ধান্তে সম্মত হয়েছেন কানহাইয়া।

সিপিআই দলের প্রতীক নিয়ে দাঁড়ালেও কানহাইয়া কুমারকে বিজেপি বিরোধী মহাজোট প্রার্থী হিসেবে দাঁড় করাতে জোরকদমে কথাবার্তা চালাচ্ছে দল। সূত্রের খবর সিপিআই (এমএল)-সহ বিহারের বাম দলগুলি এই নিয়ে সবুজ স‌ংকেত পাঠিয়েছে সিপিআইকে। প্রাথমিক আলোচনার পর মৌখিক সম্মতি মিলেছে কংগ্রেস, লালুপ্রসাদের রাষ্ট্রীয় জনতা দল, এনসিপি, শরদ যাদবের এলজেডি-র কাছ থেকেও।  সে ক্ষেত্রে কানহাইয়া কুমারই হতে চলেছেন বিজেপি বিরোধী মহাজোটের প্রথম ঘোষিত প্রার্থী।

বেগুসরাই জেলার বিহট গ্রামেই বড় হয়েছেন কানহাইয়া। তাঁর বাবা একজন ক্ষুদ্র চাষী। মা অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী। ২০১৬ সালে জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে দেশবিরোধী স্লোগান দেওয়ার অভিযোগে তাঁকে গ্রেফতার করেছিল দিল্লি পুলিশ। যদিও সেই অভিযোগ বার বার অস্বীকার করেছেন কানহাইয়া।

আরও পড়ুন: ব্রিটিশ দম্পতির মধুচন্দ্রিমা স্মরণীয় করতে নীলগিরির গা বেয়ে ছুটল ট্রেন

এই মুহূর্তে বেগুসরাই কেন্দ্রটি বিজেপির দখলে। ২০১৪ সালে আরজেডি-র তনভির হাসানকে হারিয়ে প্রথমবারের জন্য এই কেন্দ্রের দখল নেয় বিজেপি। প্রায় ৫৮,০০০ ভোটে এই আসনে জিতেছিলেন বিজেপি প্রার্থী ভোলা সিংহ। লোকসভা নির্বাচনে জোটের প্রাথমিক সমীকরণের হিসেবে এই কেন্দ্রটিতে আরজেডি প্রার্থীর দাঁড়ানোর কথা। কিন্তু বিজেপি বিরোধী মুখ হিসেবে কানহাইয়াকেই চাইছেন আরজেডি সুপ্রিমো লালুপ্রসাদ, এমনটাই খবর মিলেছে আরজেডি সূত্রে। সে ক্ষেত্রে ছাত্র আন্দোলনের মঞ্চ থেকে সংসদে অভিষেকের রাস্তা অনেকটাই প্রশস্ত হয়ে যাবে কানহাইয়ার।

আরও পড়ুন: শিশুকন্যাকে খুন করে বালতিতে চুবিয়ে দুর্ঘটনা প্রমাণের চেষ্টা, গ্রেফতার মা

(ভোটের খবর, জোটের খবর, নোটের খবর, লুটের খবর- দেশে যা ঘটছে তার সেরা বাছাই পেতে নজর রাখুন আমাদের দেশ বিভাগে।)