কে ভাঙল মূর্তি, বাইকে আগুন ধরাল কারা? ভিডিয়ো-সহ কমিশনে নালিশ ঠুকল তৃণমূল
মঙ্গলবার বিজেপি সভাপতি অমিত শাহের রোড শো ঘিরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায় কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় এবং বিদ্যাসাগর কলেজ চত্বরে।
Vandalism

এভাবেই ভাঙা হয়েছে বিদ্যাসাগরের মূর্তি। ভিডিয়ো থেকে নেওয়া ছবি

বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙা নিয়ে তোলপাড় রাজ্য। কারা মূর্তি ভাঙল, তাই নিয়ে চলছে রাজনৈতিক চাপান উতোর। তৃণমূলের অভিযোগ, আমিত শাহের রোড শো কলেজে ঢুকে তাণ্ডব চালিয়েছে বিজেপি সমর্থকরা। বিজেপি নেতৃত্বের পাল্টা অভিযোগ, নিজেরাই মূর্তি ভেঙে রাজনৈতিক ফায়দা তুলতে বিজেপির ঘাড়ে দোষ চাপাচ্ছে তৃণমূল। এই তরজার মধ্যেই একাধিক ভিডিয়ো শেয়ার করে বিজেপির বিরুদ্ধেই মূর্তি ভাঙার প্রমাণ দিতে চেয়েছেন তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ওব্রায়েন। পরে সাংবাদিক বৈঠকেও একাধিক ভিডিয়ো দেখিয়ে তাণ্ডবের দায় বিজেপির ঘাড়ে চাপিয়েছেন তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ। অন্য দিকে কলকাতাতেও একই কায়দায় ভিডিয়ো চালিয়ে কার্যত আঙুল দিয়ে দেখিয়েছেন, এই তাণ্ডবকারীরা বিজেপি সমর্থক। পরে নির্বাচন কমিশনেও ভিডিয়ো-সহ তথ্য প্রমাণ দিয়ে অভিযোগ দায়ের করা হয় তৃণমূলের তরফে। 

মঙ্গলবার বিজেপি সভাপতি অমিত শাহের রোড শো ঘিরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায় কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় এবং বিদ্যাসাগর কলেজ চত্বরে। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে অমিত শাহকে কালো পতাকা দেখানো ঘিরে এক দফা উত্তেজনা হয়। তার পর বিদ্যাসাগর কলেজে কার্যত রণক্ষেত্রের পরিস্থিতি তৈরি হয়। রোড শো শেষে দেখা যায়, বিদ্যাসাগর কলেজের ভিতরে থাকা বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙাচোরা অবস্থায় পড়ে রয়েছে। এ ছাড়া বাইক এবং সাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার ভিডিয়োও সংবাদ মাধ্যমে দেখা গিয়েছে।

বুধবার এই ঘটনার একাধিক ভিডিয়ো নিজে শেয়ার করেছেন ডেরেক ওব্রায়েন। একটি ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে, এক দল লোক একটি বাইকে আগুন ধরিয়ে দিচ্ছে। কিছুক্ষণ পরেই দেখা যাচ্ছে দাউদাউ করে জ্বলে উঠছে আগুন। এক দল লোক তার চারপাশে তাণ্ডব চালানোর চেষ্টা করছে।

আরও পড়ুন: তৃণমূলের সন্ত্রাস দেখেও চুপ কেন, কমিশনের বিরুদ্ধে তোপ দেগে বললেন অমিত শাহ

আরও পডু়ন: বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার ঘটনায় অমিত শাহের বিরুদ্ধে এফআইআর, ভয় পাই না, পাল্টা অমিতের

কিন্তু ওই ঘটনার চেয়েও বড় হয়ে উঠেছে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙা। রাতেই ঘটনাস্থলে গিয়ে মূর্তি ভাঙার নিন্দা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পার্থ চট্টোপাধ্যায়ও ঘটনাস্থলে গিয়ে নিন্দা করেন। এই মূর্তি ভাঙারও একাধিক ভিডিয়ো রয়েছে ডেরেকের টুইটার হ্যান্ডলে। তবে সেগুলি নিজে পোস্ট করেননি, অধিকাংশই রিটুইট করেছেন।

বুধবার সকালেই দিল্লিতে সাংবাদিক সম্মেলনে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ অভিযোগ করেন, রাজনৈতিক ফায়দা তুলতে নিজেরাই মূর্তি ভেঙে বিজেপির ঘাড়ে দায় চাপাতে চেয়েছে তৃণমূল। তার জবাবে এ দিন পাল্টা সাংবাদিক সম্মেলনে ডেরেকের তোপ, ‘‘অমিত শাহ মিথ্যেবাদী।’’ ঘটনার নিন্দা করে তিনি বলেন, ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর সমাজ সংস্কারক, নারী আন্দোলনের পথিকৃৎ, লেখক-সাহিত্যিক। তাঁর মূর্তি ভেঙে বাংলার সংস্কৃতি, বাংলার ঐতিহ্যকে আঘাত করা হয়েছে।

দিল্লিতে ডেরেকের একই কায়দায় কলকাতায় সাংবাদিক বৈঠক করেছেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তিনি ভিডিয়ো চালিয়ে দাবি করেন, বাইরে থেকে লোক এনে তাণ্ডব চালিয়েছে বিজেপি-ই। এক এক করে দেখিয়ে চিহ্নিত করার চেষ্টাও করেন পার্থ। 

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত