কংগ্রেসের সমর্থন চান কেসিআর
দিল্লিতে বিকল্প সরকার গড়ার লক্ষ্যে ইতিমধ্যেই বিভিন্ন আঞ্চলিক দলের নেতাদের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছেন কেসিআর।
K Chandrashekar Rao

—ফাইল চিত্র।

বিজেপির সঙ্গে যোগ নয়, দিল্লিতে সরকার গড়তে ফেডারেল ফ্রন্ট কংগ্রেসের সমর্থন নিতে চাইছে বলে জানিয়ে দিল তেলঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাওয়ের (কেসিআর) দল তেলঙ্গানা রাষ্ট্র সমিতি। গত কাল চেন্নাইয়ে ডিএমকে নেতা এম কে স্ট্যালিনের সঙ্গে কেসিআরের বৈঠকের পরে, আজ টিআরএসের মুখপাত্র আবিদ রসুল খান এ কথা জানিয়েছেন।

দিল্লিতে বিকল্প সরকার গড়ার লক্ষ্যে ইতিমধ্যেই বিভিন্ন আঞ্চলিক দলের নেতাদের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছেন কেসিআর। সম্প্রতি কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নের সঙ্গে দেখা করার পরে গত কালই স্ট্যালিনের কাছে পৌঁছন তিনি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী এইচ ডি কুমারস্বামীর সঙ্গেও এ নিয়ে বৈঠক করতে চাইছেন তিনি।  কেসিআরের মতে, এ বারের ভোটে দিল্লিতে বিজেপি কিংবা কংগ্রেস একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে না। সরকার গড়ার পরিস্থিতিতে থাকবে না তারা। এই সময়ে আঞ্চলিক দলগুলি একজোট হলে বিকল্প সরকার গড়ে তোলার সম্ভাবনা থাকবে।

তবে কংগ্রেস কিংবা বিজেপির সমর্থন ছাড়া আঞ্চলিক দলগুলির পক্ষে সরকার গড়ার স‌ংখ্যা জোগাড় করা সম্ভব হবে না, সে কথা মানছেন সকলেই। আবিদ বলেন, ‘‘ফেডারেল ফ্রন্টই দিল্লিতে সরকার গড়ার নেতৃত্ব দেবে। জোট শরিকদের থেকে কেউ সর্বসম্মতির মধ্য দিয়ে প্রধানমন্ত্রী হবেন। কংগ্রেস যাতে এইই জোটকে সমর্থন করে, সে জন্য আমরা তাদের সঙ্গে কথা বলতে চাইছি।’’ টিআরএস মুখপাত্র জানান, সরকার গড়তে কংগ্রেসকে সমর্থন দিতে চান না তাঁরা। আর সরকার গড়ার প্রশ্নে বিজেপির সঙ্গে কোনও ভাবে জোট বাঁধতে চান না তাঁরা। আবিদের মন্তব্য, ‘‘বিজেপিকে সমর্থন করব না, তাদের সমর্থন নেবও না।’’ 

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯

আঞ্চলিক দলের অনেক নেতাই কেসিআরকে বলেছেন, ২৩ তারিখের পরেই পরিস্থিতি স্পষ্ট হবে। এরই মধ্যে আজ স্ট্যালিন বলেছেন, মোদী যদি প্রমাণ করতে পারেন, তাঁরা বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন, তা হলে রাজনীতি ছেড়ে দেবেন তিনি। 

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত