মোদীকে ফের তোপ মায়ার
রাজস্থানের অলওয়ারে গণধর্ষণ কাণ্ডের জেরে বাগ্‌যুদ্ধ শুরু হয়েছিল নরেন্দ্র মোদী এবং মায়াবতীর।
Mayawati

ছবি: রয়টার্স।

লোকসভার ভোট যত শেষের দিকে পৌঁছচ্ছে, তত স্বর তীব্র হচ্ছে বিএসপি নেত্রী মায়াবতীর স্বর। আক্রমণের লক্ষ্য, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। উত্তরপ্রদেশের রাজনৈতিক শিবিরের বক্তব্য, ধারাবাহিক ভাবে মোদীর উদ্দেশে তোপ দেগে এক দিকে রাজ্যে এসপি-বিএসপি জোটের হাওয়া গরম করছেন, অন্য দিকে নির্বাচন পরবর্তী সরকার গড়ার লড়াইয়ে নিজেকে প্রাসঙ্গিক করেও রাখতে চাইছেন এই স্বঘোষিত প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী। 

রাজস্থানের অলওয়ারে গণধর্ষণ কাণ্ডের জেরে বাগ্‌যুদ্ধ শুরু হয়েছিল নরেন্দ্র মোদী এবং মায়াবতীর। গত কাল একদফা নিশানা করার পরে আজ সকাল থেকে টুইটে ফের বিঁধেছেন প্রধানমন্ত্রীকে। মায়াবতীর টুইট, ‘‘মোদী সরকারের জাহাজ ডুবছে। আরএসএস-ও তাদের সমর্থন করা বন্ধ করে দিয়েছে। নির্বাচনে দেওয়া প্রতিশ্রুতি পালনে ব্যর্থতা এবং জনরোষের মুখে পড়ে স্বয়ংসেবকদের পিছিয়ে যেতে দেখা যাচ্ছে।’’ 

আজ মায়াবতীর পাশে দাঁড়িয়ে তাঁর প্রধানমন্ত্রিত্বের দাবির পক্ষে সওয়াল করেছেন উত্তরপ্রদেশের সুহেলদেব ভারতীয় সমাজ পার্টির নেতা ওম প্রকাশ রাজভর। এনডিএ-র এই শরিক আগেই বিজেপির বিরুদ্ধে সরব হয়ে মোদী-অমিত শাহের সঙ্গ ত্যাগ করার হুমকি দিয়েছিলেন। আজ তাঁর বক্তব্য, ‘‘উত্তরপ্রদেশে এনডিএ খুব বেশি হলে ১৫ থেকে ২০টা আসন পাবে। কংগ্রেসেরও আসন বাড়বে। আমি যত দূর দেখতে পাচ্ছি, দলিত প্রধানমন্ত্রী হবেন। মায়াবতী হতেই পারেন।’’ অন্য দিকে দিল্লিতে সাংবাদিক সম্মেলনে বিজেপি নেতা রাজনাথ সিংহ বলেন, ‘‘এসপি-বিএসপি জোট আদৌ মজবুত নয়। এই দুই দল আগেও উত্তরপ্রদেশে সরকার চালিয়েছে। কিন্তু ব্যর্থ হয়েছে। এই জোটের বিশ্বাসযোগ্যতা নেই। জোটের হাওয়া বেরিয়ে গিয়েছে।’’ 

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত