লাইভ: বিহার ও পঞ্জাবে বিক্ষিপ্ত গোলমাল, সারা দেশে ভোট শান্তিপূর্ণ
সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ভোট নেওয়া হলেও পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে ঝাড়খণ্ড, বিহার এবং উত্তরপ্রদেশের বেশ কয়েকটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ শেষ হয়ে যাবে বিকেল ৪টার মধ্যেই।
vote

টাকা দিয়ে ভোট কেনার অভিযোগ উত্তরপ্রদেশে। ছবি: টুইটারের সৌজন্যে।

সারা দেশের সাতটি রাজ্য এবং একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে আজ সপ্তম তথা শেষ দফার নির্বাচন। সারা দেশে শেষ দফায় সব মিলিয়ে ৫৯টি লোকসভা আসনে ভোট। আজ ভাগ্যপরীক্ষা হবে মোট ৯১৮ জন প্রার্থীর।

পঞ্জাব এবং হিমাচল প্রদেশের সবক’টি লোকসভা আসনের পাশাপাশি আজ নির্বাচন ভোট বিহার, ঝাড়খণ্ড, মধ্যপ্রদেশ, উত্তরপ্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গ এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল চণ্ডীগড়েও। দক্ষিণ ভারতের রাজ্যগুলিতে সমস্ত লোকসভা আসনে ভোট আগেই হয়ে গিয়েছে। আজ শেষ দফার নির্বাচন তাই শুধুই উত্তর, পশ্চিম, পূর্ব ও মধ্য ভারতের রাজ্যগুলিতে।


শেষ দফায় দুপুর ৩টে পর্যন্ত ভোটদানের হার

• সপ্তম দফার ভোটে দুপুর ৩টে পর্যন্ত সারা দেশে ভোট হয়েছে ৫২.৮৭ শতাংশ।

এক নজরে দেশের বিভিন্ন রাজ্যে ভোটদানের হার—

বিহারে ভোট পড়েছে ৪৬.৬৬ শতাংশ
হিমাচল প্রদেশে ৫৫.৯৮ শতাংশ
মধ্যপ্রদেশে ৫৯.৩৮ শতাংশ
পঞ্জাবে ৪৮.৭৮ শতাংশ
উত্তরপ্রদেশে ৪৬.৫৮ শতাংশ
পশ্চিমবঙ্গে ৬৩.৬৬ শতাংশ
ঝাড়খণ্ডে ৬৪.৮১ শতাংশ
​চণ্ডীগড়ে ৫১.১৮ শতাংশ

 

পঞ্জাবে পোলিং বুথের মধ্যেই দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষ, আহত ১

পঞ্জাবের ভাটিন্ডায় তলবন্ডী সাবোতে ১২২ নম্বর বুথের বাইরে এ দিন দুপুরে দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। পুলিশ জানিয়েছে, সংঘর্ষ চলাকালীন এক দুষ্কৃতী শূন্যে গুলি ছোড়ে। সংঘর্ষের ঘটনায় এক জন আহত হয়েছেন। সাময়িক ভাবে ওই বুথে ভোটগ্রহণ স্থগিত থাকলেও ফের সেখানে ভোটদান শুরু হয়েছে।

 

দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষে বিহারের পালিগঞ্জে সাময়িক ভাবে ভোট স্থগিত।

• বিহারের পাটলিপুত্র লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত পালিগঞ্জের এ দিন দুপুরে দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষ বাধে। সরকুনা গ্রামের ১০১ ও ১০২ নম্বর বুথে সাময়িক ভাবে ভোটগ্রহণ স্থগিত করে দেওয়া হয়।

 

‘বারাণসীতে কোনও উন্নয়নই হয়নি’, দাবি কংগ্রেস প্রার্থীর

• বারাণসীর উন্নয়ন নিয়ে প্রশ্ন তুললেন ওই কেন্দ্রের কংগ্রেস প্রার্থী অজয় রাই। নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে ওই কেন্দ্রে দাঁড়িয়েছেন তিনি। এ দিন ভোটদানের পর তাঁর দাবি, বারাণসীতে ওপর ওপর কাজ হয়েছে।

 

ইনদউরের একটি বুথে বিয়ের পোশাকেই ভোট দিলেন সদ্যবিবাহিত এক দম্পতি


অকালি-বিজেপি জোটকে হারাব, আত্মবিশ্বাসী পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরেন্দ্র সিংহ।

“মোটের উপর পঞ্জাবে ভোট শান্তিপূর্ণ হচ্ছে।” এমনটাই বললেন সে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী অমরেন্দ্র সিংহ। তাঁর দাবি, “আমরা (শিরোমণি অকালি দল) এসএডি-বিজেপি জোটকে হারাব।”

 

তেজপ্রতাপ যাদবের ব্যক্তিগত দেহরক্ষীদের বিরুদ্ধে সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধিকে মারধরের অভিযোগ।

পটনায় ঝামেলায় জড়ালেন তেজপ্রতাপ যাদব। এ দিন ভোট দিয়ে বুথ থেকে বার হচ্ছিলেন তেজপ্রতাপ। অভিযোগ, সে সময় এক চিত্রগ্রাহকের সঙ্গে ধাক্কাধাক্কিতে তাঁর গাড়ির কাচ ভেঙে যায়। ওই ব্যক্তিকে মারধর করেন তেজপ্রতাপের দেহরক্ষীরা। এই ঘটনায় পুলিশে অভিযোগ জানিয়েছেন তেজপ্রতাপ।
 

বিজেপি-ই জিতবে: যোগী আদিত্যনাথ

‘নরেন্দ্র মোদীকে কেন্দ্র করেই ভোট হচ্ছে। গোরক্ষপুরে নিজের ভোটাধিকার প্রয়োগের পর দাবি উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের। তাঁর কথায়, “দেশের স্বার্থেই এই নির্বাচনে লড়াই করছে মানুষ। এটা যদি কেউ বুঝতে না পারেন, তা হলে তাঁর আইকিউ নিয়েই প্রশ্ন উঠবে। গোটা নির্বাচনই মোদীজিকে কেন্দ্র করে হচ্ছে। গত পাঁচ বছরে তাঁর সরকারের যা সাফল্য রয়েছে, তাতে বিজেপি এই ভোটে জয়লাভ করবে।”

গোরক্ষপুরের বুথে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। ছবি: টুইটারের সৌজন্যে।

রাস্তার দাবিতে ভোট বয়কট

‘রাস্তা না হলে ভোট দেব না’, রাস্তার দাবিতে ভোট বয়কট করলেন বিহারের চন্দোরা গ্রামের বাসিন্দারা। নালন্দা জেলার ওই গ্রামের ২৯৯ নম্বর বুথের ভোটারেরা বিক্ষোভ দেখালেন। গ্রামবাসীরা ইভিএম এবং বিডিও-র গাড়ি ভাঙচুর করেন বলেও অভিযোগ।

 

শেষ দফায় দুপুর ১টা পর্যন্ত ভোটদানের হার

সপ্তম দফার ভোটে দুপুর ১টা পর্যন্ত সারা দেশে ভোট হয়েছে ৪১.০৩ শতাংশ। বিহারে ভোট পড়েছে ৩৬.২০ শতাংশ, হিমাচল প্রদেশে ৩৮.৭০ শতাংশ, মধ্যপ্রদেশে ৪৫.৭১ শতাংশ, পঞ্জাবে ৩৭.৮৬ শতাংশ, উত্তরপ্রদেশে ৩৬.৭৫ শতাংশ, পশ্চিমবঙ্গে ৪৯.৭৭ শতাংশ, ঝাড়খণ্ডে ৫২.৮৯ শতাংশ, চণ্ডীগড়ে ৩৭.৫০ শতাংশ।

 

• হিমাচল প্রদেশে ভোট দিলেন স্বাধীন ভারতের প্রথম ভোটার ১০৩ বছরের শ্যামশরণ নেগি।

ভোটদানের পর বুথের বাইরে হিমাচল প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী জয়রাম ঠাকুর। —নিজস্ব চিত্র।

ভোটের লাইনে অনুরাগ ঠাকুর। —নিজস্ব চিত্র।

 

শেষ দফায় সকাল ১১টা পর্যন্ত ভোটদানের হার

সপ্তম দফার ভোটে সকাল ১১টা পর্যন্ত সারা দেশে ভোট হয়েছে ২৫.৪৪ শতাংশ। এর মধ্যে বিহারে ভোট পড়েছে ১৮.৯০ শতাংশ, হিমাচল প্রদেশে ২৭ শতাংশ, মধ্যপ্রদেশে ২৯.৪৮ শতাংশ, পঞ্জাবে ২৩.৪৫ শতাংশ, উত্তরপ্রদেশে ২৩.১৬ শতাংশ, পশ্চিমবঙ্গে ৩২.১৫ শতাংশ, ঝাড়খণ্ডে ৩১.৩৯ শতাংশ, চণ্ডীগড়ে ২২.৩০ শতাংশ।

 

উত্তরপ্রদেশের ভোটারদের টাকা দেওয়ার অভিযোগ বিজেপি-র বিরুদ্ধে

• উত্তরপ্রদেশের চান্দৌলিতে টাকা দিয়ে ভোট কেনার অভিযোগ উঠল বিজেপি-র বিরুদ্ধে। ওই এলাকার তারা জীবনপুর গ্রামের বাসিন্দাদের দাবি, তাঁদের গ্রামের তিন জন লোক জোর করে তাদের আঙুলে ভোটের কালি লাগিয়ে দেন। তাঁদের হাতে ৫০০ টাকাও গুঁজে দেন তাঁরা। গ্রামবাসীদের কথায়: “ওই তিন জনই বিজেপি-র লোক। ওরা আমাদের কাছে জানতে চাইল, আমরা তাদের পার্টির হয়ে ভোট দেব কি না? ওরা বলল, এখন তোমরা ভোট দিতে পারবে না। এ কথা কাউকে বোলো না।”

• সকাল ১০টা: নরেন্দ্র মোদীর পর এ বার ভোটারদের উদ্দেশে টুইট করলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গাঁধী। তিনি লিখেছেন, ‘আজ শেষ দফার ভোট। আমাদের মা-বোনেরা এই নির্বাচনে বিশেষ ভূমিকা পালন করছেন। প্রার্থীরা হিসাবেই শুধু নয়, ভোটারদেরও মতামত শোনার উচিত। আমি প্রত্যেককেই অভিবাদন জানাই।’

• ‘দেশের মানুষের আশীর্বাদ তাঁদের দলের সঙ্গে রয়েছে।’ ভোটদানের পর বুথের বাইরে এসে সংবাদমাধ্যমকে এমনটাই বললেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা রবিশঙ্কর প্রসাদ। তিনি বলেন, “নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে দেশকে আরও শক্তিশালী করে গড়ে তুলতে হবে। সে জন্য একটি সুদৃঢ় সরকারের প্রয়োজন, যা দেশের উন্নয়নে কাজ করবে।”

শেষ দফায় সকাল ৯টা পর্যন্ত ভোটদানের হার

• সপ্তম দফার ভোটে সকাল ৯টা পর্যন্ত দেশে ভোটদান হয়েছে ৯.৪৪ শতাংশ। বিহারে ভোট পড়েছে ১০.৬৫ শতাংশ, হিমাচল প্রদেশে ২.৪৪ শতাংশ, মধ্যপ্রদেশে ১১ শতাংশ, উত্তরপ্রদেশে ৬.৯৭ শতাংশ, পশ্চিমবঙ্গে ১৩.৪১ শতাংশ, ঝাড়খণ্ডে ১৪.৩৮ শতাংশ, চণ্ডীগড়ে ১০.৪০ শতাংশ, পঞ্জাবে ৮.০৬ শতাংশ।

 

• পটনার উইমেন্স কলেজের বুথে ভোট দিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ।

• ইনদউরে ভোট দিলেন বিজেপি নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়।

• ‘রেকর্ড সংখ্যক ভোট দিন।’ সাতসকালেই ভোটারদের কাছে টুইটারে আবেদন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর। 

• জলন্ধরে ভোট দিলেন ক্রিকেটার হরভজন সিংহ। 

সাত দফার লোকসভা নির্বাচন নিয়ে নিজের মত জানান নীতীশ কুমার। পটনায় ভোট দিয়ে বেরিয়ে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে নীতীশ বলেন, “এত দীর্ঘ সময় ধরে নির্বাচন চলা উচিত নয়। প্রতি দফার শেষে দীর্ঘ সময়ের বিরতি। এই বিষয়ে ঐক্যমত্য গড়ে তুলতে আমি সকল দলের নেতাদের কাছে লিখব।”

• সকাল ৭.৪০: পটনায় ভোট দিলেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার।

আজ ভাগ্যপরীক্ষা মোট ৯১৮ জন প্রার্থীর। গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

আজ ভাগ্যপরীক্ষা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর। উত্তরপ্রদেশের বারাণসী আসন থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তিনি। পাশাপাশি সবার নজর থাকবে বিহারের পটনাসাহিব কেন্দ্রেও। এই কেন্দ্রে মুখোমুখি লড়াই বিজেপির হেভিওয়েট প্রার্থী রবিশঙ্কর প্রসাদ এবং বিরোধী জোটের তারকা প্রার্থী শত্রুঘ্ন সিংহের। উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুরে যোগী আদিত্যনাথের খাসতালুকে এই নির্বাচনে লড়ছেন ভোজপুরী সিনেমার সুপারস্টার রবি কিসান।

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯

গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

পঞ্জাবে আজ ভাগ্যপরীক্ষা ফিল্মতারকা সানি দেওল-এর। গুরুদাসপুর কেন্দ্রে বিজেপির হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তিনি। ভাটিন্ডা কেন্দ্রে লড়ছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী এবং অকালি নেত্রী হরসিমরত কউর বাদল। হেভিওয়েট লড়াই চণ্ডীগড়েও। এখানে প্রতিদ্বন্দ্বিতা বিজেপির তারকা প্রার্থী কিরণ খের আর কংগ্রেসের প্রবীণ নেতা পবনকুমার বনসলের।

সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ভোট নেওয়া হলেও পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে ঝাড়খণ্ড, বিহার এবং উত্তরপ্রদেশের বেশ কয়েকটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ শেষ হয়ে যাবে বিকেল ৪টার মধ্যেই। আজ সন্ধে ছ’টা বাজলেই শেষ হয়ে যাচ্ছে সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়া। দিল্লির কুর্সিতে কে বসতে চলেছে, তার জন্য অবশ্য অপেক্ষাকরতে হবে আরও তিনদিন। ২৩ মে ভোটগণনা শেষ হলেই স্পষ্ট হবে কার দখলে যাচ্ছে দিল্লির তখত।

(দেশজোড়া ঘটনার বাছাই করা সেরাবাংলা খবরপেতে পড়ুন আমাদেরদেশবিভাগ।)

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত