পঞ্জাবে গিয়ে পিত্রোদাকে তির রাহুলের
পঞ্জাবে এক সভায় রাহুল গাঁধী জানান, ওই মন্তব্যের জন্য পিত্রোদার ‘লজ্জিত’ হওয়া উচিত।
Rahul Gandhi

শেষ দফার প্রচারে রাহুল গাঁধী। সোমবার লুধিয়ানার খন্নায়। ছবি: পিটিআই

১৯৮৪ সালের শিখ দাঙ্গা নিয়ে কংগ্রেসের স্যাম পিত্রোদার ‘হুয়া তো হুয়া’ মন্তব্যকে অস্ত্র করেছেন নরেন্দ্র মোদী- অমিত শাহেরা। আজ পঞ্জাবে গিয়ে পিত্রোদা-ক্ষত মেরামতের চেষ্টা করলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গাঁধী। পঞ্জাবে এক সভায় তিনি জানান, ওই মন্তব্যের জন্য পিত্রোদার ‘লজ্জিত’ হওয়া উচিত।

পিত্রোদার ওই মন্তব্যে আগেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন রাহুল। এমনকি, ‘হুয়া তো হুয়া’ মন্তব্যের জন্য ওই কংগ্রেস নেতাকে ক্ষমা চাওয়ার নির্দেশও দেন তিনি। ফতেহগঢ়ের সভায় আজ রাহুল বলেন, ‘‘১৯৮৪ সালের ঘটনা নিয়ে স্যাম পিত্রোদা যা বলেছেন, তা ভুল এবং দেশের কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত। আমি প্রকাশ্যেই বলছি পিত্রোদাজি, আপনি যা বলেছেন তা পুরোপুরি ভুল। এই জন্য আপনার লজ্জিত হওয়া উচিত। ফোন করেও ওঁকে এই কথাগুলিই বলেছি।’’

শিখ দাঙ্গা নিয়ে প্রশ্নের জবাবে পিত্রোদা বলেছিলেন, ‘‘১৯৮৪ সালে যা হয়েছে হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী গত পাঁচ বছর ধরে প্রতিশ্রুতি পালন করেছেন কি না সেটা বলুন।’’ পিত্রোদার এই মন্তব্য লুফে নেন মোদী-শাহেরা। প্রচারে মোদী লাগাতার বলে চলেছেন, এটাই কংগ্রেসের চরিত্র এবং ঔদ্ধত্য। বিজেপি সভাপতি বলছেন, ‘‘পিত্রোদার ওই মন্তব্য শিখ নিধনকে মান্যতা দিচ্ছে।’’  

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত