আডবাণীকে উপেক্ষা করা ‘দুঃখজনক’, বিজেপিকে নিশানা করলেন রবার্ট বঢরা
বৃহস্পতিবার একটি ফেসবুকে পোস্টে তিনি লিখেছেন, ‘‘প্রকৃত রাজনীতিবিদ ও তাঁদের বার্তা তথাদলের স্তম্ভই আজ বিস্মৃত। প্রকৃত নেতাদের সম্মান করা উচিত, উপেক্ষা নয়। তাঁদের হারিয়ে যেতে দেওয়া উচিত নয়।’’
Robert Vadra

আডবাণী নিয়ে বিজেপিকে নিশানা করলেন রবার্ট বঢরা। —ফাইল চিত্র

তিনি সক্রিয় রাজনীতিতে আসবেন কিনা, সেই জল্পনা বহুদিনের। এ বার লোকসভা ভোটের মুখে তাঁর প্রার্থী হওয়া নিয়েও রাজনৈতিক শিবিরে গুঞ্জন ছড়িয়েছিল। কিন্তু জল্পনা যাই হোক, তিনি যে রাজনীতির পট পরিবর্তনের প্রতি মুহূর্তের খবর রাখেন, তা আবারও জানান দিলেন রবার্ট বঢরা। এ বার লালকৃষ্ণ আডবাণীর ব্লগ নিয়ে বিজেপিকে আক্রমণ করলেন প্রিয়ঙ্কা গাঁধীর স্বামী। বিজেপির আডবাণীকে ‘উপেক্ষা করাদুঃখজনক’— মন্তব্য বঢরার।

প্রবীণ বিজেপি নেতা আডবাণীর ব্লগ নিয়ে রাজনৈতিক চর্চা তুঙ্গে। ব্লগের সূত্র ধরে দলের প্রবীণ এবং বর্ষীয়ান নেতাদের বিজেপি উপেক্ষা করে এবং আডবাণী-মুরলী মনোহর জোশীরাই তার প্রমাণ— এই লাইনে আক্রমণ শুরু করে কংগ্রেস। অন্য দিকে প্রধানমন্ত্রী মোদীও কৌশলে আডবাণীর ব্লগকেই হাতিয়ার করে টুইট করেন, সঠিক পথই দেখিয়েছেন মার্গদর্শক আডবাণী। সেই চর্চা এখনও থামেনি। চলছে আক্রমণ-প্রতি আক্রমণ।

আরও পড়ুন: ‘বিরোধী মানেই নন দেশদ্রোহী’, পাঁচ বছর পরে নিজের ব্লগে বিস্ফোরক আডবাণী

আরও পড়ুন: বাংলাই এ বার দিল্লি গড়বে, মাথাভাঙার জনসভা থেকে ডাক মমতার

এ বার সেই বিতর্কে যোগ দিলেন রবার্ট। বৃহস্পতিবার একটি ফেসবুকে পোস্টে তিনি লিখেছেন, ‘‘প্রকৃত রাজনীতিবিদ ও তাঁদের বার্তা তথাদলের স্তম্ভই আজ বিস্মৃত। প্রকৃত নেতাদের সম্মান করা উচিত, উপেক্ষা নয়। তাঁদের হারিয়ে যেতে দেওয়া উচিত নয়।’’

এর পর ওই পোস্টেই নিজের মতও প্রকাশ করেছেন বঢরা। লিখেছেন, “আমরা যদি এই সব প্রবীণ নেতাদের অভিজ্ঞতার মূল্য দিতে না পারি, তাহলে সেটা অবমাননাকর। দুর্দান্ত বিরোধী নেতা হিসেবে আমি সব সময় ওঁকে (আডবাণী)সম্মান করেছি। কিন্তু দুঃখের বিষয়, তাঁর দলই তাঁকে ভুলে গিয়েছে।’’

দীর্ঘদিন ধরে গাঁধীনগর কেন্দ্র থেকে জিতে আসা ‘লৌহপুরুষ’ আডবাণীকে এ বার প্রার্থী না করে কার্যত রাজনৈতিক সন্ন্যাসে পাঠানোর প্রক্রিয়ায় তিনি যে ক্ষুব্ধ, তা বোঝা যাচ্ছিল। কিন্তু এত দিন মুখ খোলেননি। অবশেষে বৃহস্পতিবার নিজের ব্লগে লিখেছেন, বিজেপি কখনও এমনটা মনে করেনি যে, ‘বিরোধিতা মানেই দেশদ্রোহিতা’। বিরোধীদের কখনও ‘শত্রু’ ভাবেনি। আডবাণীর এই ব্লগের পরই কার্যত অস্বস্তিতে পড়ে বিজেপি। সেই বিতর্কে যোগ দিয়ে বঢরা বিজেপির অস্বস্তি আরও বাড়ালেন বলেই মত রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের।

দিল্লি দখলের লড়াইলোকসভা নির্বাচন ২০১৯ 

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত