পরীক্ষা করে জানান সব ভিভিপ্যাট ঠিক আছে কিনা, নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের
প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃত্বে সুপ্রিম কোর্টের একটি বেঞ্চ নোটিস দিল নির্বাচন কমিশনকে। আগামী ২৫ মার্চ, পরবর্তী শুনানির দিন কমিশনের কোনও অফিসারকে শীর্ষ আদালতে গিয়ে এ ব্যাপারে সব কিছু জানাতে বলা হয়েছে।
vvpat

ইভিএম। -ফাইল ছবি

দেশের সব বুথের সবক’টি ইভিএমের ভিভিপ্যাট যন্ত্রগুলির উপর ভোটাররা ভরসা রাখতে পারেন কি না, নির্বাচন কমিশনের কাছে শুক্রবার তা জানতে চাইল সুপ্রিম কোর্ট। ২৩টি বিরোধী দলের অভিযোগ ছিল ভিভিপ্যাট যন্ত্র থাকা ইভিএম গুলির ৫০ শতাংশই নিরাপদ নয়। সেগুলি সহজেই ‘হ্যাক’ করা যায়। ফলে, ওই সব ইভিএমের মাধ্যমে ভোটারদের মতামত সঠিক ভাবে প্রতিফলিত হওয়ার সম্ভাবনা কম।

তার প্রেক্ষিতেই প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃত্বে সুপ্রিম কোর্টের একটি বেঞ্চ নোটিস দিল নির্বাচন কমিশনকে। বলা হল, ইভিএম গুলিকে পরীক্ষা করে দেখা হোক। আগামী ২৫ মার্চ, পরবর্তী শুনানির দিন কমিশনের কোনও অফিসারকে শীর্ষ আদালতে গিয়ে এ ব্যাপারে সব কিছু জানাতে বলা হয়েছে।

দেশের ৫০ শতাংশ ইভিএমেই কারচুপি করা সম্ভব বলে যে ২৩টি রাজনৈতিক দল সুপ্রিম কোর্টে পিটিশন করেছে, তাদের মধ্যে রয়েছে ৬টি জাতীয় দল এবং ১৭টি আঞ্চলিক দল। অভিযোগকারীদের মধ্যে নাম রয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী এন চন্দ্রবাবু নায়ডু, এনসিপি নেতা শরদ পওয়ার, কংগ্রেসের কে সি বেণুগোপাল, তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন, সমাজবাদী পার্টি নেতা অখিলেশ যাদব, ডিএমকে নেতা এম কে স্ট্যালিন ও দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল-সহ বহু নেতার।

আরও পড়ুন- গৌতম দেবরা পথে নামলেও প্রার্থী খুঁজতে হিমশিম ঘিসিংরা আজ বৈঠকে​

আরও পড়ুন- দলবদলের সঙ্গে ভোলবদলও হল অর্জুনের​

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত