নির্বাচনী প্রচারের সময় কমল হাসনকে লক্ষ্য করে জুতো-বৃষ্টি!
যদিও জুতো কামাল হাসনের গায়ে লাগেনি। মঞ্চটা অনেকটাই দূরে থাকায় ভিড়ের মধ্যেই সেগুলো পড়ে যায়।
Kamal Hassan

—ফাইল চিত্র।

‘গডসে স্বাধীন ভারতের প্রথম সন্ত্রাসবাসী’ মন্তব্যের জের! কামাল হাসনকে লক্ষ্য করে চপ্পল-বৃষ্টি হল তামিলনাড়ুতে। বুধবার সন্ধ্যায় তামিলনাড়ুর তিরুপ্পারানকুনদ্রামের উপনির্বাচন উপলক্ষ্যে একটি প্রচারসভায় গিয়েছিলেন তিনি। সেখানে মঞ্চে বক্তৃতা করার সময় সামনের ভিড়ের মধ্য থেকে তাঁকে লক্ষ্যে করে একটার পর একটা জুতো ছোড়া শুরু হয়।

যদিও জুতো কামাল হাসনের গায়ে লাগেনি। মঞ্চটা অনেকটাই দূরে থাকায় ভিড়ের মধ্যেই সেগুলো পড়ে যায়। প্রাথমিক ভাবে পুলিশ জানিয়েছে, এই ঘটনায় যুক্ত এমন ১১ জনকে চিহ্নিত করেছে পুলিশ। তাঁদের মধ্যে বিজেপি এবং হনুমান সেনার সমর্থকেরা রয়েছেন।

রবিবার তামিলনাড়ুর চারটি বিধানসভায় উপনির্বাচন। তার মধ্যে আরাভাকুরিচি এবং তিরুপ্পারানকুনদ্রামও রয়েছে। ২০১৮ সালে মাক্কাল নিধি মইয়াম নামে যে দল গড়েছেন কামাল হাসন, চলতি লোকসভা নির্বাচনে এই প্রথম তাঁর দল লড়ছে। আরাভাকুরিচি এবং তিরুপ্পারানকুনদ্রামের উপনির্বাচনেও প্রার্থী দিয়েছে মাক্কাল নিধি মইয়াম।

আরও পড়ুন: কাঞ্চনজঙ্ঘা অভিযান থেকে ফেরার পথে মৃত দুই বাঙালি, গুরুতর অসুস্থ ১

এর আগে তাঁর দল মাক্কাল নিধি মইয়াম-এর প্রার্থী এস মোহনরাজের সমর্থনে প্রচারে গিয়েছিলেন হাসন। সেখানে নাথুরাম গডসেকে স্বাধীন ভারতের প্রথম ‘হিন্দু সন্ত্রাসবাদী’ বলে বিজেপির আক্রমণের মুখে পড়েন। তামিলনাড়ুর আরাভাকুরিচির ওই জনসভায় হাসন বলেন, ‘‘স্বাধীন ভারতের প্রথম সন্ত্রাসবাদী এক জন হিন্দু। তিনি মোহনদাস কর্মচন্দ গাঁধীর হত্যাকারী নাথুরাম গডসে। তাঁকে দিয়েই (সন্ত্রাসবাদ) শুরু হয়েছিল।’’

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত