ভিভিপ্যাট নিয়ে আর্জি খারিজ শীর্ষ আদালতে
আগামী ২৩ মে লোকসভা ভোটের গণনা। তার আগে ইভিএম নিয়ে কারচুপির আশঙ্কা রয়েছে বিরোধী শিবিরে।
sc

সুপ্রিম কোর্ট

ইভিএমের ফলাফলের সঙ্গে ১০০ শতাংশ ভিভিপ্যাট স্লিপ মিলিয়ে দেখে ভোট গোনার আর্জি খারিজ করে দিল সুপ্রিম কোর্ট।

আগামী ২৩ মে লোকসভা ভোটের গণনা। তার আগে ইভিএম নিয়ে কারচুপির আশঙ্কা রয়েছে বিরোধী শিবিরে। এই পরিস্থিতিতেই চেন্নাইয়ের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা শীর্ষ আদালতে আর্জি জানিয়েছিল, ভোট গণনার সময়ে ইভিএমের সাথে ১০০ শতাংশ ভিভিপ্যাটেরও রায় মিলিয়ে গোনা করা হয়। আবেদনকারী সংস্থাটির যুক্তি, ২০১৯ সালের লোকসভা ভোটে যে ইভিএম করা ব্যবহার হয়েছে, তার মডেল নতুন। ভোটপর্ব চলার সময়ে দেশজুড়ে এই সব ইভিএমে গোলমালের খবর এসেছে। দেশে তৃতীয় পর্ব পর্যন্ত ভোট হয়েছে যখন, সেই ৩০৩টি লোকসভা কেন্দ্রের মধ্যে ৪৯টিতেই ভোটযন্ত্রে গোলমাল ধরা পড়েছে। এমনকি, ওড়িশা ও গোয়ার মতো রাজ্যে ইভিএম ও ভিভিপ্যাটের সমন্বয় নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। তবে এ সব যুক্তি মেনে নিতে রাজি হয়নি শীর্ষ আদালত।

বিচারপতি অরুণ মিশ্রের নেতৃত্বাধীন সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন বেঞ্চ মঙ্গলবার জানিয়েছে, ভিভিপ্যাটের এই বিষয় নিয়ে প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ ইতিমধ্যেই তাঁদের রায় শুনিয়েছে। বিচারপতিরা আবেদনকারীর উদ্দেশে বলেন, ‘‘প্রধান বিচারপতি যখন এ বিষয়ে রায় দিয়ে দিয়েছেন, তখন দুই সদস্যের অবকাশকালীন বেঞ্চের সামনে এসে আপনারা সুয়োগ নিতে চাইছেন কেন?’’ আবেদন খারিজ করে দিয়ে বেঞ্চ জানিয়েছে, ‘‘আমরা প্রধান বিচারপতির রায়কে খারিজ করতে পারব না।’’

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯

গত ৮ এপ্রিল সুপ্রিম কোর্ট নির্বাচন কমিশনকে নির্দেশ দিয়েছিল, লোকসভা কেন্দ্রগুলির অন্তর্গত প্রতিটি বিধানসভা আসনের অন্তত পাঁচটি বুথে ভিভিপ্যাট রাখতে হবে। এর পরে ৭ মে অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নায়ডুর নেতৃত্বে ২১টি বিরোধী দলের নেতারা ইভিএমের সঙ্গে অন্তত ৫০ শতাংশ ভিভিপ্যাট স্লিপ মিলিয়ে দেখার আর্জি নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে গিয়েছিলেন। কিন্তু শীর্ষ আদালত  সেই আর্জি খারিজ করে দিয়েছিল।

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত