‘কালা জাদু’ করার অভিযোগে এক প্রৌঢ়কে পাথর দিয়ে থেঁতলে মারল গ্রামবাসীরা। মঙ্গলবার ঘটনাটি ঘটেছে ঝাড়খণ্ডের লোহারডাগা জেলার ঝালজামেন্দ্র গ্রামে।

পুলিশ জানিয়েছে, মৃতের নাম শাহনাই ওরাঁও (৫২)। ঘটনার সূত্রপাত এক ব্যক্তির মৃত্যুকে কেন্দ্র করে। ওই গ্রামেরই এক বাসিন্দা বিরসা ওরাঁওয়ের মৃত্যু হয় সে দিন। একমাত্র শাহনাই ছাড়া গ্রামের সকলেই তাঁর অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় গিয়েছিলেন। গোটা গ্রাম যেখানে অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় হাজির হয়েছে, শাহনাই কেন এলেন না? এখান থেকেই গ্রামবাসীদের মধ্যে এই ধারণা জন্ম নেয়, বাড়িতে বসে নিশ্চয়ই ‘কালা জাদু’ করছে শাহনাই! এই ধারণা গ্রামবাসীদের মধ্যে হু হু করে ছড়িয়ে পড়ে।

পুলিশ আরও জানিয়েছে, গ্রামবাসীদের মধ্যে সেই মুহূর্তে এমন ধারণাও জন্মেছিল যে, শাহনাইয়ের কালা জাদু করার জন্যই মৃত্যু হয়েছে বিরসার। অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার শেষে গোটা গ্রামের রাগ গিয়ে পড়ে শাহনাইয়ের উপর। তাঁকে বাড়ি থেকে টেনে বার করে প্রথমে বেধড়ক মারধর করেন গ্রামবাসীরা। প্রবল মারের চোটে জ্ঞান হারান শাহনাই। তখনই গ্রামবাসীরা পাথর দিয়ে তাঁর মাথা থেঁতলে দেয়। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় শাহনাইয়ের। এর পর গ্রামবাসীরা তাঁর দেহ গ্রামেরই অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রের সামনে ফেলে দিয়ে আসে।

আরও পড়ুন: টাকা নয়ছয় মামলায় ধৃত কংগ্রেস নেতা শিবকুমার অভিনন্দন জানালেন বিজেপিকে

আরও পড়ুন: অল্পবয়সি মেয়েরা বাড়ি ফেরে না, প্রায় কিশোরী-শূন্য গ্রাম

গণপিটুনির খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ। কিন্তু তত ক্ষণে শাহনাইয়ের মৃত্যু হয়েছিল। পুলিশ তাঁর দেহ উদ্ধার করে নিয়ে যায়। শাহনাইয়ের ছেলের বয়ানের ভিত্তিতে একটি অভিযোগও দায়ের করে পুলিশ। এক পুলিশ আধিকারিক জানিয়েছেন, গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। কারা এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত তাঁদের খুঁজে বার করা হবে শীঘ্রই। কালা জাদুর ধারণা থেকেই শাহনাইকে খুন করা হয়েছে নাকি এর পিছনে ব্যক্তিগত কোনও শত্রুতা রয়েছে পাশাপাশি সেটাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।