গ্রেটার নয়ডার একটি অ্যাপার্টমেন্ট থেকে উদ্ধার হল এক দম্পতির দেহ। স্ত্রীকে খুন করে আত্মহত্যা করেছেন স্বামী, অভিযোগ উঠল এমনটাই। বছর চৌত্রিশের মনীষার সঙ্গে সাতচল্লিশের গিরিশ ভাটনগরের আলাপ একটি ম্যাট্রিমোনিয়াল সাইটে। তারপর বছর দুয়েক আগে বিয়ে করেন তাঁরা।

বিশরাখ পুলিশ স্টেশনের অধীনে গ্রেটার নয়ডার গ্যালাক্সি ভেগা অ্যাপার্টমেন্টে থাকতেন তাঁরা। মাস ছয়েক আগে চাকরি ছেড়ে দেন গিরিশ। এরপর আচমকাই গিরিশ জানতে পারেন, তাঁর স্ত্রীর এটি দ্বিতীয় বিবাহ। প্রথমবারের বিয়ে ভেঙে যাওয়ার পর গিরিশকে বিয়ে করেন মনীষা।

পুলিশ জানিয়েছে, মনীষা নাকি সন্দেহ করত গিরিশের নিজের বোনের সঙ্গে নাকি তাঁর সম্পর্ক রয়েছে। তা নিয়েও স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই বচসা হত। এছাড়াও স্ত্রী প্রথম বিয়ের কথা গোপন করেছেন জানার পর থেকেই অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়েন গিরিশ। পুলিশের প্রাথমিক ধারণা, স্ত্রীকে খুন করে আত্মহ্ত্যা করেছেন গিরিশ। কারণ মনীষার শরীরে আঘাতের চিহ্ন ছিল।

আরও পড়ুন: পিছিয়ে গেল ৩৫এ শুনানি, স্তব্ধ কাশ্মীর

সোমবার দম্পতিদের মধ্যে কাউকে ফোনে না পেয়ে মনীষার ভাই গ্যালাক্সি ভেগা অ্যাপার্টমেন্টে হাজির হন। দরজায় ধাক্কা দিয়ে বা বেল বাজিয়েও সাড়া না মেলায় পুলিশে খবর দেন তাঁরা। দরজা ভেঙে উদ্ধার করা হয় দুটি মৃতদেহ।

আরও পড়ুন: দরজা খুলতেই তরুণীকে গুলি করে পালাল প্রত্যাখ্যাত প্রেমিক​

‘‘ময়নাতদন্তের রিপোর্ট এলে সঠিক ঘটনা জানা যাবে। মনে করা হচ্ছে স্ত্রীকে খুন করে আত্মহত্যা করেছেন গিরিশ’’, এমনটাই বলেন বিশরাখের স্টেশন হাউস অফিসার অখিলেশ ত্রিপাঠী।