এনআরসির চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করার জন্য তাড়াহুড়োয় যাতে কোনও ভুল না হয় তা নিয়ে অসমের এনআরসি দফতরকে সতর্ক করল সুপ্রিম কোর্ট। সেই সঙ্গে এনআরসির তৃতীয় খসড়া প্রকাশের  তারিখ সাতদিন পিছোল।

আদালতের নির্দেশ, ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে নাগরিকপঞ্জির চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করতে হবে।  তার মধ্যে প্রায় আড়াই লক্ষ দাবি-আপত্তি জমা পড়েছে। তারও নিষ্পত্তি করতে হবে। অনেক ক্ষেত্রেই মিথ্যে আপত্তির ফলে নাজেহাল হচ্ছেন প্রকৃত হয়। বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে সংবাদ মাধ্যমে সেই সব খবর নিয়মিত প্রকাশিত হচ্ছে। অসমের নব নির্বাচিত সাংসদ আবদুল খালেকের মায়ের নাগরিকত্ব নিয়ে অভিযোগ জমা পড়ার খবর বিভিন্ন সংবাদপত্রে বেরিয়েছে। এ বারের লোকসভা ভোটেও ভোট দেওয়া পুলিশের এএসআই তথা প্রাক্তন সেনাকর্মী মহম্মদ সানাউল্লাহকেও মঙ্গলবার বাংলাদেশি সন্দেহে জেলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সেই খবরও বহুল প্রচারিত হয়।

আজ সুপ্রিম কোর্টের প্রাধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ ও বিচারপতি অনিরুদ্ধ বোসের ভেকেশন বেঞ্চ অসমের এনআরসি কোঅর্ডিনেটর প্রতীক হাজেলাকে নির্দেশ দেয়,  দ্রুত এনআরসি প্রকাশ করার অজুহাতে কোনও গাফিলতি চলবে না। যাদের নাগরিকত্ব নিয়ে আপত্তি এসেছে তাঁদের নাগরিকত্ব প্রমাণের ও এনআরসিতে নাম ঢোকানোর পর্যাপ্ত সুযোগ দিতে হবে।  গগৈয়ের মতে,  সংবাদে যা বেরোচ্ছে সবই মিথ্যে বা অতিরঞ্জিত হতে পারে না। গোটা প্রক্রিয়া স্বচ্ছ হতে হবে।

আরও পড়ুন- অর্ণবকে জেরা করতেই সারদার ২ ট্রাঙ্ক নথির হদিশ! কোথায় ছিল এত নথি, উঠছে প্রশ্ন

আরও পড়ুন- অবৈধ সম্পত্তি: ইডির জেরায় হাজির হলেন রবার্ট বঢরা​

হাজেলা অতিরিক্ত খসড়া প্রকাশ করতে আরও সাতদিন সময় চেয়েছিলেন। বিচারপতি গগৈ তা মেনে নিয়েছেন। ফলে খসড়া প্রকাশিত  হবে ২২ জুন।

 এনআরসির নমুনা পূনর্মূল্যায়ন,  অতিরিক্ত খসড়া প্রকাশ,  আড়াই লক্ষ আপত্তি মেটান, খসড়াছুট ৪০ লক্ষের আবেদন যাচাই করা,  বিভিন্ন সংশোধন শেষ করে আর দু মাসের মধ্যে চূড়ান্ত এনআরসি প্রকাশ করতে হবে। এনআরসি প্রকাশের সময়সীমা আর বাড়াতেও রাজি নন গগৈ। এখন পর্যন্ত মাত্র ৭০ শতাংশ আপত্তির নিষ্পত্তি হওয়ায় অসন্তোষ প্রকাশ করে দ্রুত নির্ভুলভাবে সব আপত্তি মেটাতে বলেন গগৈ। 

পাশাপাশি রাজ্যে আরও ফরেনার্স ট্রাইব্যুনাল গড়তে ও সেখানে বিচারক নিয়োগের জন্য অবসরপ্রাপ্ত সচিব বা অতিরিক্ত সচিবদের নিয়ে সিলেকসন কমিটি গড়তে অনুমতি দেয় বেঞ্চ।