অর্থনীতির ভিত দুর্বল হয়ে পড়ার অভিযোগ উঠছে ঠিকই, কিন্তু তার মধ্যেই নিজেদের ‘মজবুত, নির্ণায়ক’ বলে দাবি করে প্রথম ১০০ দিনের ‘সাফল্য’ নিয়ে প্রচারে নামছে মোদী সরকার। দ্বিতীয় বার ক্ষমতায় এসে ৩০ মে শপথ নিয়েছিলেন নরেন্দ্র মোদী । শনিবার, ৭ মে সরকারের ১০০ দিন পূরণ হচ্ছে। সরকারি সূত্রের খবর, এই ১০০ দিনের সাফল্য তুলে ধরতে ওই দিন মন্ত্রীরা কলম ধরবেন। সংবাদপত্রে তাঁদের লেখা নিবন্ধ প্রকাশ হবে। দিল্লির পাশাপাশি অন্যান্য শহরে গিয়েও মন্ত্রীরা সাংবাদিক সম্মেলন করবেন। 

চলতি বছর এপ্রিল-জুনে, সরকারের প্রথম ১০০ দিনের মধ্যেই আর্থিক বৃদ্ধির হার ৫ শতাংশে নেমে এসেছে। প্রতি মাসেই গাড়ি বিক্রি কমছে। অল্প দামের বিস্কুটের প্যাকেটেরও চাহিদা নেই বাজারে। নতুন লগ্নি, রফতানি— সবেতেই ভাটার টান। গাড়ি শিল্পেই কয়েক লক্ষ মানুষের চাকরি যাওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। বাজেটে করের বোঝা চাপায় শেয়ার বাজার থেকে বিদেশি লগ্নিকারীরা বিদায় নিচ্ছেন। এই আবহে ‘মজবুত সরকার’-এর প্রমাণ হিসেবে পেশ করা হবে তিন তালাক, ৩৭০ অনুচ্ছেদ রদের মতো সিদ্ধান্ত। চন্দ্রযান-২-এর চাঁদে অবতরণ থেকে প্লাস্টিকের কাপ-প্লেট-ঝোলা নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্তকেও সাফল্যের তালিকায় রাখা হচ্ছে। 

বস্তুত, অর্থনীতির ঝিমুনির ব্যর্থতাকে ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিল ও তিন তালাক আইন চালু করার ‘সাহস’ দিয়ে ঢেকে ফেলতে চাইছে সরকার। এক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বললেন, ‘‘এই সরকার সাহসী সিদ্ধান্ত নেয়। শুধু ৩৭০ নয়, এই সরকার ইউএপিএ আইন সংশোধন করে দাউদ ইব্রাহিম, হাফিজ সইদ থেকে মাসুদ আজহারকে সন্ত্রাসবাদী তকমা দিয়েছে। গরিব, সাধারণ মানুষ, মহিলাদের কথাও সরকার ভাবে। তাই এক টাকায় স্যানিটারি ন্যাপকিনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।’’

সাফল্যের দাবি

• ৩৭০ অনুচ্ছেদ রদ
• তিন তালাক আইন 
• সংসদে রেকর্ড পরিমাণ বিল পাশ
• চন্দ্রযান-২-এর সাফল্য
• ইউএপিএ আইন সংশোধন করে দাউদ-হাফিজ-মাসুদদের সন্ত্রাসবাদী তকমা
• এক টাকায় স্যানিটারি ন্যাপকিন
• প্লাস্টিক বর্জনের সিদ্ধান্ত

ব্যর্থতার প্রশ্ন

• আর্থিক বৃদ্ধির হার ৫ শতাংশে নেমে আসা
• গাড়ি শিল্পে মন্দা, ১০ লক্ষ চাকরি যাওয়ার আশঙ্কা
• নতুন লগ্নি, রফতানিতে ভাটা
• বাজারে বিক্রিবাটার অভাব

তবে অর্থনীতির হালও ফেরানোর চেষ্টা চলছে বলে দাবি সরকারি কর্তাদের। বাজেটের একগুচ্ছ ঘোষণা প্রত্যাহার করে প্রতি সপ্তাহে নতুন পদক্ষেপের কথা জানাচ্ছেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। সরকারি ব্যাঙ্কের সংযুক্তিকরণের পরে এ বার তাঁর আবাসন শিল্পের জন্য সুরাহা ঘোষণা করার কথা। অর্থ মন্ত্রক সূত্রের খবর, সোমবার সংশ্লিষ্ট মন্ত্রকগুলির বৈঠক হয়েছে। সেখানে আটকে থাকা আবাসন প্রকল্পের জন্য তহবিল গঠন নিয়ে আলোচনা হয়েছে। সব কিছু চূড়ান্ত হলে শনিবারই এ বিষয়ে ঘোষণা হতে পারে।