সরকারের সমালোচনা করলেই বিজ্ঞাপন বন্ধ করে সংবাদমাধ্যমের কণ্ঠরোধের চেষ্টা হচ্ছে বলে অভিযোগ তুললেন লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা অধীররঞ্জন চৌধুরী। আজ লোকসভায় অধীর বলেন, ‘আনন্দবাজার পত্রিকা’ ও ‘দ্য টেলিগ্রাফ’ প্রধানমন্ত্রীর সমালোচনা করেছে, ‘দ্য হিন্দু’ রাফাল চুক্তির বেনিয়ম ফাঁস করেছিল, ‘টাইমস অব ইন্ডিয়া’ নরেন্দ্র মোদীর আদর্শ আচরণবিধি লঙ্ঘন প্রকাশ্যে এনেছে।

তাদের সরকারি বিজ্ঞাপন বন্ধ করে বার্তা দেওয়া হচ্ছে, সরকারের সুরে সুর মেলাতে হবে। তাঁর মতে, গণতান্ত্রিক দেশে মতপ্রকাশের স্বাধীনতা, সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা এতটাই গুরুত্বপূর্ণ যে তাকে রক্ষা করতে রুখে দাঁড়ানো দরকার।

রাজ্যসভায় মোদী বলেন, ‘‘আমি অবাক! বলা হচ্ছে, সংবাদমাধ্যমকে কিনে জেতা হয়েছে। সংবাদমাধ্যম কি বিক্রি হয়ে যায়? সংবাদমাধ্যমকে নিয়ন্ত্রণ করে ভোটে জেতা যায়? তামিলনাড়ু ও কেরলের ক্ষেত্রেও কি এই তত্ত্ব চলবে?’’ দিল্লিতে বিধানসভা ভোটের আগে মোদী নিজেই সংবাদমাধ্যমের একাংশকে ‘বাজারু’ বলেছিলেন। সংবাদমাধ্যমকে ‘প্রেস্টিটিউট’ বলেছিলেন মোদী সরকারের মন্ত্রী ভি কে সিংহ।