বিহারে মুজফ্ফরপুরের হোমে আবাসিক মেয়েদের উপরে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৭ নম্বর ধারা মেনে তদন্ত করতে সিবিআইকে নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট। আবাসিক মেয়েদের উপরে নির্যাতনের   ভিডিয়োও তদন্তকারীদের খতিয়ে দেখতে বলেছে বিচারপতি ইন্দু মলহোত্র ও বিচারপতি এম আর শাহের বেঞ্চ। সিবিআইকে তিন মাসের মধ্যে তদন্ত শেষ করতে নির্দেশ দিয়েছে শীর্ষ আদালত।

গত বছরের নভেম্বর মাসে টাটা ইনস্টিটিউট অব সোশ্যাল সায়েন্সেস-এর অডিটে মুজফ্‌ফরপুর-সহ বিহারের বেশ কয়েকটি হোমে আবাসিকদের মারধর ও যৌন নির্যাতনের ঘটনা সামনে আসে। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে ওই ঘটনাগুলি নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে সিবিআই। মুজফ্‌ফরপুরের ঘটনায় হোমের মালিক ও প্রভাবশালী হিসেবে পরিচিত ব্রজেশ ঠাকুর-সহ ২১ জনের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই চার্জশিট পেশ করেছে সিবিআই।

পরে সিবিআই সুপ্রিম কোর্টে জানায়, মুজফ্‌ফরপুরের হোমে ১১ জন মেয়েকে খুন করা হয়েছে বলে তাদের ধারণা। ওই এলাকা থেকে কিছু হাড়গোড়ও উদ্ধার হয়েছে। ৩ জুনের মধ্যে এই খুনের অভিযোগের তদন্ত শেষ করতে তদন্তকারীদের নির্দেশ দেয় বেঞ্চ। কিন্তু সিবিআই জানায়, তাদের আরও সময় প্রয়োজন।

এ দিনের শুনানিতে বেঞ্চ জানায়, ওই হোমে মেয়েদের উপরে ‘বিকৃত’ যৌন নির্যাতন হয়েছে বলে অভিযোগ। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৭ নম্বর ধারা মেনে সেই অভিযোগের তদন্ত করতে হবে। নির্যাতনের কিছু ভিডিয়োও রয়েছে। সেগুলিও খতিয়ে দেখতে হবে। ওই হোমে মেয়েদের যৌন নির্যাতনে কিছু ‘বহিরাগত’-এর ভূমিকা আছে বলে অভিযোগ। বেঞ্চ জানিয়েছে, এ নিয়েও তদন্ত করতে হবে। সিবিআই অবশ্য জানিয়েছে, বহিরাগতদের ভূমিকা নিয়ে ইতিমধ্যেই তদন্ত করা হয়েছে।