•  সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

আমার স্বামীই খুন  করেছে হর্ষিতাকে, দাবি নিহতের দিদির

harshita
হর্ষিতা দাহিয়া

পরপর সাতখানা গুলি। ছ’টাই এসে লেগেছিল কপালে ও ঘাড়ে। মাটিতে লুটিয়ে পড়েন তরুণী। গত কাল পানিপথ থেকে অনুষ্ঠান করে ফেরার পথে আততায়ীদের গুলিতে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় হরিয়ানার গায়িকা হর্ষিতা দাহিয়ার। আজ তাঁর দিদির দাবি, আর কেউ নয়, তাঁরই স্বামী খুন করেছে বোনকে। 

বাইশ বছরের হর্ষিতা নয়াদিল্লির নরেলা এলাকায় থাকতেন। হরিয়ানার লোকগান, বিশেষ করে ‘রাগিনী’ গানের জন্য নামডাক ছিল তাঁর। প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশ জানিয়েছে, মঙ্গলবার অনুষ্ঠান সেরে ফেরার পথে বিকেল চারটে নাগাদ হর্ষিতাদের পিছু ধাওয়া করে একটি কালো গাড়ি। তার পর চামরারা গ্রামের কাছে গতি বাড়িয়ে পাশ কাটিয়ে এগিয়ে গিয়ে পথ আটকায় সেই গাড়িটি। চালক-সহ হর্ষিতাদের গাড়ির সবাইকে নামতে বলে আততায়ীরা। গাড়িতে আরও এক গায়ক ছিলেন। সকলেই নামেন গাড়ি থেকে। এর পরেই গুলি চালিয়ে পালিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা। 

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও পোস্ট করে হর্ষিতা লিখেছিলেন, তাঁকে খুন করার হুমকি দেওয়া হচ্ছে। লেখেন, তিনি কাউকে ডরান না। কিন্তু এটা জানা যায়নি, হর্ষিতা সে দিন পুলিশকে কিছু জানিয়েছিলেন কি না। হর্ষিতা এ-ও স্পষ্ট করে উল্লেখ করেননি, কে বা কারা তাঁকে এই হুমকি দিচ্ছে। কারও নাম করেননি, শুধু লিখেছিলেন, ‘‘আমাদের ইন্ডাস্ট্রির কিছু লোক, হরিয়ানারই কিছু শিল্পী, ফোন করে আমায় ভয় দেখাচ্ছে। ভিডিওটা মুছে দেওয়ার জন্য জোর দিচ্ছে। না হলে নাকি ওরা আমায় দেখে নেবে। আমি ফেসবুক থেকে ওই ভিডিওটা মুছব না... আমি মরতে ভয় পাই না।’’

আরও পড়ুন: দেওয়ালির আগে পাক হামলা, উদ্বেগ

যদিও পুলিশ জানাচ্ছে, প্রাথমিক ভাবে তাদের সন্দেহের তির এক মাফিয়ার দিকে। সে-ই হর্ষিতার দিদির বর দীনেশ। ২০১৪ সালে হর্ষিতা জামাইবাবুর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেছিলেন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতার করা হয়েছিল দীনেশকে। আপাতত তিহাড় জেলে বন্দি সে। ওই বছরই খুন হয়ে যান হর্ষিতার মা-ও। আবার অভিযোগ ওঠে দীনেশের বিরুদ্ধে। 

পুলিশের সেই সন্দেহই আরও জোরদার করল হর্ষিতার দিদি লতার অভিযোগ। তাঁর কথায়, ‘‘মাকে খুনের ঘটনায় অন্যতম সাক্ষী ছিল বোন। তাই ওকে সরিয়ে দেওয়া হল এ ভাবে।’’ তা হলে হর্ষিতার লেখা ‘শিল্পী’ বা ‘ইন্ডাস্ট্রির লোক’ কারা? 

পানিপথের ডিএসপি দেশ রাজ বলেন, ‘‘পুলিশের একটা দল গঠন করা হয়েছে। তদন্ত চলছে। ধীরে ধীরে হলেও এই রহস্যের জট খুলব আমরা।’’                       

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন