ভারত সরকারের আপাতত ২৪টি পরমাণু চুল্লি তৈরির পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানালেন পরমাণু শক্তি সচিব কে এন ব্যাস।

আজ দিল্লিতে শক্তিসম্পদ সংক্রান্ত এক অনুষ্ঠানে ব্যাস বলেন, ‘‘৭টি চুল্লির নির্মাণকার্য শুরু হয়েছে। আরও ১৭টি তৈরি হবে। আমরা এখন ফ্লিট মোড পদ্ধতিতে চুল্লি তৈরি করছি। তাতে নির্মাণের খরচ কমে। সময়ও বাঁচে।’’ ২০৩০ সালের মধ্যে ২১টি চুল্লি তৈরির পরিকল্পনার কথা গত বছরেই জানিয়েছিল পরমাণু শক্তি দফতর। ব্যাসের বক্তব্য, ‘‘আগামী দশকের মধ্যে পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রে ২০ গিগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের। আমার মনে হয় সহজেই এই লক্ষ্যপূরণ করা সম্ভব। অনেক শিল্পপতিই পরমাণু শক্তি ক্ষেত্রে বিনিয়োগ করতে আগ্রহী হবেন বলে আমি মনে করি।’’

পরমাণু বিদ্যুৎ ক্ষেত্রের স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী জিতেন্দ্র সিংহের বক্তব্য, ‘‘পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলি আগে মূলত দক্ষিণ ভারতেই সীমাবদ্ধ ছিল। এখন দেশের অন্য অংশেও পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্র তৈরিতে উদ্যোগী হয়েছে সরকার।’’