• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

এনসিবি দলে করোনা, সুশান্ত-কাণ্ডে বন্ধ জিজ্ঞাসাবাদ

Sushant Singh Rajputr
—ফাইল চিত্র।

সুশান্ত সিংহ রাজপুতের অস্বাভাবিক মৃত্যুতে মাদকের যোগ নিয়ে তদন্ত করছে নারকোটিক্স কন্ট্রোল বুরো (এনসিবি)-র যে দলটি, তার মধ্যে এক জনের কোভিড সংক্রমণ ধরা পড়েছে। ফলে প্রয়াত অভিনেতার প্রাক্তন ম্যানেজার শ্রুতি মোদীকে আজ সকালে ডেকে পাঠিয়েও তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারল না এনসিবি। 

আজ সকাল ১০টার সময়ে দক্ষিণ মুম্বইয়ে এনসিবি-র দফতরে পৌঁছেছিলেন শ্রুতি। কিন্তু তাঁর বয়ান রেকর্ড শুরু করার আগেই এনসিবি-র হাতে তাদের এক তদন্তকারীর করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট আসে। জানা যায়, তিনি পজ়িটিভ। তখনই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, আপাতত জিজ্ঞাসাবাদ বন্ধ থাকুক। স্পেশ্যাল ইনভেস্টিগেশন টিম (সিট)-এর অন্যদেরও এ বার করোনা পরীক্ষা করা হবে বলে জানিয়েছে এনসিবি।

আজ ডেকে পাঠানো হয়েছিল সুশান্তের ট্যালেন্ট ম্যানেজার জয়া সাহাকেও। ফেরত পাঠিয়ে দেওয়া হয় তাঁকেও। এই জয়ার সঙ্গে রিয়ার হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটেও মাদকের প্রসঙ্গ পেয়েছিলেন আর এক তদন্তকারী সংস্থা, এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের গোয়েন্দারা। জয়া ও শ্রুতিকে এর আগে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে সিবিআই। 

আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্ত নিতিন গডকড়ী, টুইট করে জানালেন নিজেই​

সুশান্তের দেহের ময়না-তদন্ত হয়েছিল যে কুপার হাসপাতালে, সেখানে অভিনেতার বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীর উপস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিল সুশান্তের পরিবার। তাদের অভিযোগ পেয়ে মহারাষ্ট্রের রাজ্য মানবাধিকার কমিশন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ, বৃহন্মুম্বই পুরসভা ও মুম্বই পুলিশের কাছে রিপোর্ট তলব করেছিল। আজ কমিশন জানিয়েছে, রিপোর্ট খতিয়ে দেখে এর মধ্যে কোনও বেআইনি কার্যকলাপের চিহ্ন পায়নি তারা। রিয়া কুপার হাসপাতালে সে দিন মিনিট ৪৫ ছিলেন। সূত্রের খবর, জামিনের আবেদন করে দু’-এক দিনের মধ্যেই হাইকোর্টে যেতে পারেন রিয়া ও তাঁর ভাই শৌভিক চক্রবর্তী। আজই সুশান্তের লোনাভালার ফার্মহাউসের ম্যানেজার রইস একটি টিভি চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে দাবি করেছেন, শৌভিক ও সুশান্তের বন্ধু স্যামুয়েল হাওকিপকে মাদক সেবন করতে দেখেছিলেন তিনি।

আরও পড়ুন: দিল্লি হিংসায় চার্জশিট পুলিশের, ১৫ জন অভিযুক্তের মধ্যে নেই উমর, শরজিলের নাম​

আজ রিয়ার সমর্থনে মুখ খুলেছেন অভিনেতা তাপসী পন্নু। আজ একটি সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘‘আমি রিয়াকে ব্যক্তিগত ভাবে চিনি না। কিন্তু যে ভাবে তাঁর চরিত্রহনন করা হচ্ছে তা নিন্দনীয়। আদালত কোনও রায় দেওয়ার আগেই রিয়াকে দোষী সাব্যস্ত করে দেওয়া হচ্ছে। আপনারা কী চান, রিয়া জেলে থাকুন, নাকি আসল দোষী জেলে যাক!’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন