• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

স্ত্রীর লেনদেনে অনিয়ম নেই, বিবৃতি নাগেশ্বরের

nageswar rao

সল্টলেকের সিএ ব্লকের প্রবীণ আগরওয়ালের সঙ্গে তাঁর বন্ধুত্বের কথা স্বীকার করে নিলেন সিবিআইয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান নাগেশ্বর রাও। প্রবীণ আগরওয়ালের সংস্থা অ্যাঞ্জেলা মার্কেন্টাইলের থেকে তাঁর স্ত্রী ২৫ লক্ষ টাকা ঋণ নিয়েছিলেন— এটাও সত্য বলে জানান তিনি। তাঁর বক্তব্য, এর মধ্যে অনিয়মের কিছু নেই। সবই হয়েছে নিয়ম মেনে। কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে। সরকারকে দেওয়া সম্পত্তি ও আয়ের হিসেবেও সবই জানানো রয়েছে।

অলোক বর্মা ও রাকেশ আস্থানাকে ছুটিতে পাঠিয়ে এম নাগেশ্বর রাওকে সিবিআইয়ের কাজ চালানোর দায়িত্ব দেওয়ার পরই তাঁর স্ত্রীর আর্থিক লেনদেন নিয়ে সংবাদমাধ্যমে প্রশ্ন উঠেছিল। নাগেশ্বর নিজের সম্পত্তির হিসেব দিতে গিয়ে জানিয়েছিলেন, অ্যাঞ্জেলা-র কাছ থেকে ঋণ নিয়ে জমি কিনেছিলেন তাঁর স্ত্রী । কিন্তু দক্ষিণ ভারতের একটি সংবাদ চ্যানেল দাবি করে, ওই সংস্থা থেকে থেকে ঋণ নয়, উল্টে সেখানে  বিনিয়োগ করেছিলেন নাগেশ্বরের স্ত্রী।

নাগেশ্বর আজ এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, দু’টি তথ্যই সত্যি। কিন্তু এর মধ্যে কোনও অনিয়ম নেই। ২০১০-এ তাঁর স্ত্রী এম সন্ধ্যা কলকাতার প্রবীণ আগরওয়ালের অ্যাঞ্জেলা মার্কেন্টাইলের থেকে ২৫ লক্ষ টাকা ঋণ নেন। প্রবীণ তাঁর দীর্ঘদিনের পারিবারিক বন্ধু। সেই টাকায় অন্ধ্রের গুন্টুরে জমি কেনেন সন্ধ্যা। পরের বছর সন্ধ্যা উত্তরাধিকার সূত্রে পাওয়া জমি বেচে পাওয়া অর্থের সঙ্গে নিজের সঞ্চয় যোগ করে মোট ৬০ লক্ষ টাকা অ্যাঞ্জেলা-কে পাঠান। অ্যাঞ্জেলা তার পাওনা ২৫ লক্ষ টাকা বাদ দিয়ে বাকি ৩৫ লক্ষ টাকা সংস্থায় লগ্নি করে। তিন বছর পরে সুদ সমেত প্রায় ৪১ লক্ষ ৩৩ হাজার টাকা 

ফেরত দেয়। তাৎপর্যপূর্ণ হল, নাগেশ্বর রাও আজ ব্যক্তিগত ভাবে নিজের সই করা বিবৃতি জারি করে আর্থিক অনিয়মের অভিযোগ খারিজ করেছেন। এ জন্য সিবিআই বা তার মুখপাত্রের দফতরকে 

ব্যবহার করেননি।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন