অর্থমন্ত্রীর একটি উক্তি। নানা ‘অর্থে’ সেই উক্তিকে ব্যবহার করেই সোশ্যাল মিডিয়ায় রসিকতার ছড়াছড়ি।

মঙ্গলবার গাড়ি বিক্রি কমে যাওয়ার দায় ‘মিলেনিয়াল’ অর্থাৎ নতুন প্রজন্মের ঘাড়ে চাপিয়ে ছিলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। সেই দাবির অর্থনৈতিক যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন তো উঠেইছে, সেই সঙ্গে ছুটেছে রসিকতার ফোয়ারাও।

মঙ্গলবার সন্ধে থেকেই নির্মলার যুক্তির নকলে যুক্তি সাজিয়ে মজা শুরু হয় টুইটারে। ‘নির্মলার মতো’ হয়ে সেই সুরে কথা বলতে শুরু করে নেট-দুনিয়া। ট্রেন্ডিং হয় #সেইটলাইকনির্মলা। একজন রামদেবের প্রাণায়ামের ছবি দিয়ে লেখেন, ‘এরপর সকালে অক্সিজেনের সঙ্কট শুরু হবে, কারণ মিলেনিয়ালরা সকালে অক্সিজেন বেশি নিচ্ছে।’ উঠে আসে দেশের শিল্পের নানা ক্ষেত্রে মন্দার নানা ‘তত্ত্ব’। বিস্কুট শিল্পে মন্দা নিয়ে একজন ব্যাখ্যা দেন, ‘‘পার্লে-জি’র বিক্রি কমছে, কারণ মিলেনিয়ালরা পিউবিজি খেলছে।’’ আরেকজন সেই সুর টেনেই বলেন, ‘‘বিমান শিল্পে মন্দা, কারণ মিলেনিয়ালরা পিউবিজি ভিডিয়ো গেমের প্লেনেই উড়ে বেড়াচ্ছে!’’

নির্মলার সুরে কথা বলতে বলতেই মিলেনিয়ালদের দোষারোপ করে তাদের বয়কটের ডাক দেয় টুইটার। শুরু হয় নতুন হ্যাশট্যাগ, #বয়কটমিলেনিয়ালস, যা ট্রেন্ডিং তালিকায় ছিল বুধবার দিনভর। সেখানেও নতুন প্রজন্মের ঘাড়ে বহুবিধ দোষ চাপানো হয়। একজনের লেখেন, ‘‘প্রসাধনের বিক্রি কমছে, কারণ মিলেনিয়ালরা স্মার্টফোনে ছবি এডিট করার অ্যাপ ব্যবহার করছে।’’ আরেক জন তো ভারত হেভি ইলেকট্রিক্যালস লিমিটেড বা ‘ভেল’-এর ক্ষতির কথা তুলে এনে খোঁচা দেন কথার খেলার মোড়কে। লেখেন, ‘‘ভেলের (ভেলপুরি) বাজার মন্দা, কারণ মিলেনিয়ালরা পানিপুরি, অর্থাৎ ফুচকা খাচ্ছে।’’ কৃষিক্ষেত্রে মন্দার কারণ হিসেবে একজন ব্যাখ্যা দেন, ‘‘মিলেনিয়ালরা ডাল-রুটি না খেয়ে পিৎজা খাচ্ছে।’’ একধাপ এগিয়ে আরেক জনের সংযোজন, ‘‘মিলেনিয়ালরা বেশি জল খাচ্ছে বলেই দেশে জলেরও সঙ্কট!’’

‘মিলেনিয়াল’ ব্যাপারটা ঠিক কী, তা জানতেও নির্মলার মন্তব্যের পর কৌতূহল ধাপে ধাপে বেড়েছে। এই শব্দের মানে জানতে বুধবার পঞ্চাশ হাজারেরও বেশি সার্চ হয়েছে গুগলে। তার মধ্যে সব চেয়ে বেশি সার্চ হয়েছে কর্নাটক থেকে। তার পরেই রয়েছে দিল্লি। সার্চ হয়েছে ‘মিলেনিয়াল মাইন্ডসেট’ নিয়েও। নির্মলা সীতারামনের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়েও গুগল ঘেঁটেছেন অনেকে। সেই তালিকায় সবার শীর্ষে রয়েছে দিল্লি।