• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

অভব্য আচরণে নাম ‘নো ফ্লাই’ তালিকায়!

Flight

বিমান যাত্রীদের অভব্য আচরণ রুখতে কড়া পদক্ষেপের ভাবনা কেন্দ্রের। ঘরোয়া উড়ানের কোনও যাত্রী কোনও রকম খারাপ আচরণ করলে তাঁদের নাম তোলা হোক ‘নো-ফ্লাই’ তালিকায়। খারাপ আচরণের গুরুত্ব অনুযায়ী তিন মাস থেকে দু’বছর পর্যন্ত আকাশে উড়তে পারবেন না ওই তালিকায় থাকা যাত্রীরা। শুক্রবার এমনই প্রস্তাব দিয়েছে বিমান মন্ত্রক। 

যাত্রীদের বিরুদ্ধে বিমানকর্মীদের সঙ্গে খারাপ ব্যবহারের অভিযোগ ওঠে হামেশাই। সম্প্রতি এয়ার ইন্ডিয়ার কর্মীকে ২৫ বার জুতো পেটা করার অভিযোগ উঠেছে শিবসেনা সাংসদ রবীন্দ্র গায়কোয়াড়ের বিরুদ্ধে। এই অভব্য আচরণের জন্য সাংসদকে সাময়িক ভাবে যাত্রী-তালিকা থেকে বাদ দেয় এয়ার ইন্ডিয়া এবং ফেডারেশন অব ইন্ডিয়ান এয়ারলাইন্স (এফআইএ)। এই ঘটনার পরেই শুক্রবার সাংবাদিক বৈঠক করে ‘নো ফ্লাই’ তালিকা প্রকাশ করার কথা জানালেন বিমানমন্ত্রী অশোক গজপতি রাজু।

ঘরোয়া বিমানের ‘নো ফ্লাই’  তালিকায় নাম উঠলে যাত্রীদের তিনটি স্তরে শাস্তির প্রস্তাব দিয়েছে সরকার। কোনও যাত্রী আপত্তিজনক অঙ্গভঙ্গি বা গালিগালাজ করলে তাঁকে তিন মাস যাত্রী-তালিকার বাইরে রাখা হবে। কোনও যাত্রী মারামারিতে জড়িয়ে পড়লে বা যৌন হেনস্থা করলে ছ’মাস তাঁর বিমানযাত্রা নিষিদ্ধ করা হবে। আর কোনও যাত্রীর আচরণে কারও প্রাণ সংশয় হলে বা নিরাপত্তা বিঘ্নিত হলে সেই যাত্রী দু’বছর বা তার বেশি সময় বিমানে উঠতে পারবেন না। বিমান মন্ত্রক সংশ্লিষ্ট বিমান সংস্থাকে একটি কমিটি গঠন করতে বলেছে। সেই কমিটি ‘নো ফ্লাই’ তালিকায় কোনও যাত্রীর নাম উঠবে কি না, বা উঠলেও তাঁর শাস্তির পরিমাণ কী হবে, তা ঠিক করবে। বিমান মন্ত্রকও তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করবে। শাস্তিপ্রাপ্ত যাত্রী শাস্তির বিরুদ্ধে সেই কমিটির দ্বারস্থ হতে পারবেন। তবে নিরাপত্তার ক্ষেত্রে বিপজ্জনক ব্যক্তিরা সেই সুযোগ পাবেন না।

এই সংক্রান্ত বিমান মন্ত্রকের নয়া প্রস্তাব মন্ত্রকের ওয়েব সাইটে দেওয়া থাকবে। সাধারণ মানুষও এই বিষয়ে মতামত দিতে পারবেন। ৩০ জুনের মধ্যে এই ব্যাপারে চূড়ান্ত সংশোধনী আনতে পারে কেন্দ্র। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন