সোমবার সকাল থেকে লখনউতে সমাজবাদী পার্টির সদর দফতরের সামনে রাজনৈতিক উত্তেজনা তুঙ্গে। পার্টি সুপ্রিমো মুলায়ম সিংহ যাদবের ডাকা এই বৈঠক শুরুর আগে মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদব এবং দলের প্রদেশ সভাপতি শিবপাল যাদবের সমর্থকদের মধ্যে তুমুল সংঘর্ষেরও সাক্ষী থাকল লখনউ। প্রত্যাশিত ভাবেই অখিলেশের সমর্থকদের সংখ্যাই ছিল বেশি। ফলে শিবপাল-অমর সিংহ অনুগামীদের পিছু হঠতে হয়। তবে স্লোগান-পাল্টা স্লোগানে সরগরম হয়ে ওঠে গোটা এলাকা। সপা সদর দফতরের বাইরেই কিন্তু সীমাবদ্ধ থাকেনি এই আঁচ, অন্দরেও একই অবস্থা দেখা গিয়েছে বলে সপা সূত্রের খবর। ভাইপো অখিলেশের বিরুদ্ধে একের পর এক অভিযোগ তুলেছেন শিবপাল। কাকার বিরুদ্ধে ধারালো আক্রমণ শানিয়েছেন অখিলেশও। শিবপাল বলেন, ‘‘গঙ্গাজলের দিব্যি দিয়ে বলছি, অখিলেশ বলেছিলেন, তিনি পৃথক দল গড়ছেন।’’ শিবপালের অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করে অখিলেশ জানান, কোনও নতুন দল তিনি গড়ছেন না, গড়ার কথা বলেনওনি। আবেগপ্রবণ ভাষণে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী বাবা মুলায়মের উদ্দেশে বলেন, ‘‘রাজনৈতিক জীবনে যত দূর পৌঁছেছি, তা আপনার জন্যই। দলে আমার কিছুই নেই সবই আপনার। কিন্তু কেউ যদি আপনার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে, আমি তাকে ছাড়ব না।’’ মুলায়মের বিরুদ্ধে চক্রান্ত হচ্ছিল বলেই কড়া পদক্ষেপ করতে তিনি বাধ্য হয়েছেন বলে অখিলেশ এ দিন অভিযোগ করেছেন। বৈঠকে উত্তেজনা এতই বেড়ে যায় যে অখিলেশ, শিবপাল এবং অমর সিংহ নিজেদের মধ্যে মাইক্রোফোন নিয়ে কাড়াকাড়ি শুরু করেন বলেও জানা গিয়েছে।

কী ঘটছে সমাজবাদীর পার্টির বৈঠকে? জেনে নিন লাইভ:

• ‘নির্বাচনে কে কে টিকিট পাবেন, তা আমিই ঠিক করব।’ বৈঠকে সাফ জানালেন অখিলেশ।

• আমি এখনও দুর্বল হয়ে যাইনি, বললেন মুলায়ম।

• আমাকে দল চালানোর স্বাধীনতা দেওয়া হোক, মুলায়মের কাছে আর্জি শিবপালের।

• অখিলেশকে নয়, মুলায়মকে মুখ হিসেবে তুলে ধরে নির্বাচনে যাক সমাজবাদী পার্টি, প্রস্তাব শিবপালের।

• মুলায়ম কারও প্রস্তাবেই সম্পূর্ণ সায় দেননি। সরকার অখিলেশ চালাবেন, দল শিবপাল চালাবেন, ঘোষণা মুলায়মের।

• টিকিট বিলির দায়িত্ব কে পাচ্ছেন, তা এখনও স্পষ্ট নয়।

• বৈঠকে অখিলেশকে প্রবল ধমক দিয়েছিলেন মুলায়ম।

• অমর সিংহ এবং শিবপাল সিংহ যাদবকে দূরে সরিয়ে দেওয়ার কোনও প্রশ্নই ওঠে না, অখিলেশকে জানান তিনি।

• মুলায়মের নেতৃত্ব মানতে অস্বীকার করেননি অখিলেশ। কিন্তু জানিয়ে দিয়েছেন, নির্বাচনে কাকে টিকিট দেওয়া হবে, সে সিদ্ধান্ত তিনিই নেবেন।

অখিলেশের উদ্দেশে মুলায়ম বলেন:

• শিবপাল এবং অমর সিংহের নামে কিছু শুনতে পারব না।

• শিবপাল আমার জন্য এবং দলের জন্য যা করেছেন, তা কখনও ভুলব না।

• অমর সিংহকে গালাগালি দেওয়া হচ্ছে!

• অমর সিংহ আমাকে জেলে যাওয়ার হাত থেকে বাঁচিয়েছিলেন।

• আমার ভাই হয় অমর সিংহ।

• কতটুকু ক্ষমতা আছে তোমার? অখিলেশকে প্রশ্ন মুলায়মের।

• তোমাকে ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে বলে তোমার মাথা ঘুরে গিয়েছে? পদ পেতেই তোমার মাথা খারাপ হয়ে গিয়েছে? মুখ্যমন্ত্রী তথা পুত্র অখিলেশ যাদবকে এই ভাষায় আক্রমণ মুলায়মের।

• রামগোপালের দালালি চলবে না। সমাজবাদী পার্টি ভাঙতে পারে না। লখনউতে সপা সদর দফতরের বৈঠকে বললেন মুলায়ম সিংহ যাদব।

• (অখিলেশকে নির্দেশ দেন) শিবপালকে আলিঙ্গন করো। উনি তোমার কাকা।

• অখিলেশ-শিবপালকে নিজেদের মতপার্থক্য মেটানোর নির্দেশ দেন।

• অখিলেশ এর পর শিবপালকে জড়িয়ে ধরেন। পা ছুঁয়ে প্রণামও করেন।

শিবপাল যাদব অখিলেশের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ তুললেন বৈঠকে:

অখিলেশ অলগ পার্টি চাহতে থে।

• নেতাজির দলে কোনও বিশৃঙ্খলা বরদাস্ত করা হবে না: শিবপাল।

• এই দল নেতাজির চেষ্টায় এত দূর পৌঁছেছে।

• কেন আমার দফতর কেড়ে নেওয়া হয়েছে? কী অপরাধ করেছিলাম আমি? অখিলেশকে প্রশ্ন শিবপালের।

• অখিলেশ নতুন দল গড়ার কথা ভেবেছিল, নির্বাচনে জোট গড়ার কথাও বলেছিলেন। দাবি শিবপালের।

• সমাজবাদী পার্টির সকলকে একটাই লক্ষ্যে কাজ করতে হবে, ২০১৭-নির্বাচনে জেতা।

• অমর সিংহের পায়ের ধুলের যোগ্যও নও তোমরা, নাম না করে অখিলশকে খোঁচা শিবপালের।

• দলকে যাঁরা দুর্বল করে দেওয়ার চেষ্টা করছেন, যাঁরা আমাদের বিরুদ্ধে কাজ করছেন, তাঁদের জানা উচিত নেতাজির ঘাম রক্ত দিয়ে আমরা ফের সরকার গঠন করেছি।

• নেতাজির উচিত এ বার নির্বাচনের আগেই দলের দায়িত্ব নেওয়া।

এর পরেই বলতে ওঠেন নেতাজি মুলায়ম সিংহ:

• খুব খারাপ লাগছে এটা ভেবে যে, আমার পরিবারেই ভাঙন!

• শিবপাল আমজনতার এক জন বড় নেতা।

• অনেক কষ্ট করে এই দল গড়েছি আমরা। দুর্বলতার সঙ্গে সড়াই করার বদলে আমরা নিজেদের মধ্যেই লড়াই করছি।

• কিছু নেতা শুধু চামচাবাজিই করতে পারেন। তার বাইরে কিছু পারেন না।

• কিছু মন্ত্রী শুধু চাটুকারিতাই করে যাচ্ছেন। বড় ভাবনা না থাকলে মন্ত্রী হওয়া যায় না।

• আমি এই বৈঠক ডেকেছি, যাতে আমরা ২০১৭-র এই নির্বাচন জিততে পারি।

আরও খবর...

যাদব বংশে মুষলপর্ব, সব নজর আজ মুলায়মের দিকে