নোবেলজয়ী অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করেছেন, তারিফ করেছেন প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু পর দিনই ফের সঙ্ঘ শিবির থেকে উড়ে এল কটাক্ষ।

আরএসএস সমর্থিত ‘ভারতীয় শিক্ষণ মণ্ডল’-এর জাতীয় সংগঠন সচিব মুকুল কানিতকর এক নিবন্ধে লিখেছেন, অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নীতি ইতিমধ্যেই ব্যর্থ হয়েছে। তা সত্ত্বেও নোবেল পুরস্কার দিয়ে তাঁর সেই তত্ত্বে সিলমোহর দেওয়া হয়। আমেরিকা ‘ওবামা কেয়ার’ থেকেও হাত ঝেড়ে ফেলেছে। কারণ, অর্থনীতির উপর চাপ পড়ছে। কানিতকরের অভিযোগ, নোবেল দিয়ে ‘আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র’-এর অংশ হিসেবে ব্যবহার করা হতে পারে অভিজিৎকে। রাহুল গাঁধী সম্প্রতি স্মরণ করিয়ে দেন, অভিজিৎই ভোটে কংগ্রেসের প্রস্তাবিত ‘ন্যায়’ প্রকল্প গড়তে সাহায্য করেছিলেন। সঙ্ঘ নেতার তোপ, ‘‘সাহস থাকলে পঞ্জাব, মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থানের মতো রাজ্যে ‘ন্যায়’ চালু করে দেখাক কংগ্রেস।’’

তাঁদের নতুন বই ‘গুড ইকনমিক্স ফর হার্ড টাইমস’-এ অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায় ও এস্থার দুফলো লিখেছেন, ওবামাকেয়ার কী ভাবে আমেরিকায় রিপাবলিকান বনাম ডেমোক্র্যাটদের মধ্যে দলীয় রাজনীতির অস্ত্র হয়ে উঠেছিল। তাঁরা এটাও দেখিয়েছেন যে গত বছর মার্কিন কংগ্রেস নির্বাচনে কয়েকটি রাজ্যে ভোটদাতারা সেই দলাদলিকে প্রত্যাখ্যান করে ওবামার প্রস্তাবিত স্বাস্থ্য বিমার পক্ষেই মত দিয়েছেন।