রেলের হাত ধরে এ বার ইন্টারনেটের আওতায় চলে আসবেন প্রত্যন্ত এলাকার মানুষজনও। দেশের সুদূর প্রান্তে ৫০০টি স্টেশনে ওয়াই-ফাই হটস্পট কিয়স্ক চালু করবে রেল। রেল মন্ত্রকের দাবি, ‘রেলওয়্যার সাথী’ নামে এই প্রকল্পে কর্মসংস্থান ছাড়াও উন্নত হবে যোগাযোগ ব্যবস্থাও।

রেল মন্ত্রকের এক শীর্ষ কর্তা জানিয়েছেন, ওই কিয়স্কগুলির মাধ্যমে সরকারি প্রকল্প ছাড়াও মিলবে বিভিন্ন অনলাইন পরিষেবা। টেলিফোন বুথের মতো দেখতে কিয়স্কগুলিতে ই-কমার্স, অনলাইন ট্রেন-বাসের টিকিট বুকিং, অনলাইনে মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা, মোবাইল-ডিটিএইচ রিচার্জ করা, বিমা যোজনার সুযোগসুবিধা-সহ একাধিক পরিষেবা মিলবে। আগামী মে মাস থেকে এই প্রকল্প চালু হওয়ার সম্ভাবনা।

আরও পড়ুন

৯৬ হাজার টাকার পুরনো নোট, মায়ের সঞ্চয় জলে, বিপাকে অনাথ সন্তানেরা!

‘জিডিটাল ইন্ডিয়া’ অঙ্গ হিসাবে এই প্রকল্পে বেকার যুবক-যুবতী বিশেষত মহিলাদের কর্মসংস্থানের সুযোগ রয়েছে বলে জানিয়েছেন রেলের ওই কর্তা। রেলের টেলিকম শাখা ‘রেলটেল’-এর মাধ্যমে এই প্রকল্প রূপায়ণ করা হবে। কিয়স্কের ডিজাইন থেকে শুরু করে ট্রেনিং— সব কিছুর ব্যবস্থা করবে ‘রেলটেল’। ইচ্ছুক ব্যক্তিরা ‘রেলটেল’-এ যোগাযোগ করে ট্রেনিং নিতে পারবেন। ন্যাশনাল স্কিল ডেভেলপমেন্ট কাউন্সিল (এনএসডিসি) অনুমোদিত সেই ট্রেনিং কোর্সের শেষে প্রধানমন্ত্রী মুদ্রা যোজনার আওতায় সহজেই ঋণ মিলবে বলেও দাবি রেলের। ঋণ মেলার পর বেকার যুবক-যুবতীরা নিজেরাই ওয়াই-ফাই কিয়স্ক খুলে ব্যবসা করতে পারবেন।

আরও পড়ুন

গ্রাহকদের জন্য ১২০ জিবি ফ্রি ৪-জি ডেটা আনল রিলায়্যান্স জিও!

সাধারণ মানুষের জন্য একাধিক সরকারি প্রকল্প চালু থাকলেও দেশের দূরদূরান্তে খাকার কারণে অধিকাংশই সে বিষয়ে অবগত নন। ‘রেলওয়্যার সাথী’ সে অভাব মেটাবে বলে দাবি মন্ত্রকের।