তান্ত্রিক বিধান দিয়েছিলেন। বলেছিলেন, অস্বাস্থ্যকর মেয়েকে বলি দেওয়ার জন্য। আর তাহলেই নাকি পরবর্তী সন্তান স্বাস্থ্যবান হবে।

আর তান্ত্রিকের সেই পরামর্শ মেনে ছ’ বছরের মেয়েকে খুন করে ঘরের মধ্যেই পুঁতে দিলেন বাবা-মা। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর প্রদেশের মোরাদাবাদে।

মোরাদাবাদের চৌধরপুর গ্রামের স্থানীয় বাসিন্দাদের সন্দেহ হওয়ার তাঁরা পুলিশে খবর দিয়েছিলেন। পুলিশ এসে ঘরের ভিতর থেকে মাটি খুঁড়ে ছয় বছরের তারার ভঙুর দেহ উদ্ধার করে।পুলিশ জানিয়েছে, এই ঘটনার পর থেকেই ওই শিশুটির বাবা-মা পলাতক। খোঁজ নেই সেই তান্ত্রিকেরও।

পুলিশের জেরায়, শিশুটির ঠাকুরমা জানিয়েছেন, রিকেটে ভুগছিল তাঁর নাতনি। বহু চিকিৎসার পরও কোনও লাভ হয়নি। কাজ হয়নি কোনও ওষুধেই। ক্রমেই খারাপ হতে থাকে তার শারীরিক অবস্থা। সম্প্রতি রিকেটে আক্রান্ত হয়ে পড়েছিল তাঁর এক নাতিও, জানান তারার ঠাকুরমা।

আরও পড়ুন: পিছিয়ে গেল ৩৫এ শুনানি, স্তব্ধ কাশ্মীর

আরও পড়ুন: দরজা খুলতেই তরুণীকে গুলি করে পালাল প্রত্যাখ্যাত প্রেমিক​

শিশু তারার দেহ উদ্ধারের পর তা ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়। ময়নাতদন্তের রিপোর্টে জানা গিয়েছে, শিশুটি অপুষ্টির শিকার ছিল। তার পেটে একটি দানাও খুঁজে পাওয়া যায়নি৷ শ্বাসকষ্টে তারা মারা গিয়েছে বলে রিপোর্টে বলা হয়েছে৷ মোরাদাবাদের থানার পুলিশ অফিসার জানিয়েছেন, তারাকে শ্বাসরোধ করে খুন করে মাটিতে পুঁতে দেওয়া হয়।